বিএনপির বক্তব্য: ২১শে আগস্টের ‘দুর্ঘটনা’ নিয়ে কান্নাকাটির কিছু নেই (ভিডিও)

0

সময় এখন:

বিএনপির সিনিয়র নেতা, স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল একাত্তর টিভির এক প্রতিবেদনে বলেন, ২১শে আগষ্ট একটি দুর্ঘটনা। পৃথিবীর অনেক দেশের রাজনীতিতে এরকম দুর্ঘটনা ঘটে থাকে। পুরনো ইতিহাস নিয়ে এতো আলোচনার কিছু নেই। এটা নিয়ে কোনো জাতি সারাজীবন কান্নাকাটি করেনি। এগুলো কোনো বিষয়ই না এখন।

আগামীকাল ২১শে আগস্ট বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের সমাবেশে গ্রেনেড হামলার ১৮ বছর পূর্তি হচ্ছে। ২০০৪ সালে ঐ জনসভায় তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেত্রী এবং বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীদের উপর ১৩টি গ্রেনেডের পরিকল্পিত হামলা চালানো হয়। এতে শহিদ হন দলের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক আইভি রহমানসহ ২৪ জন নেতা-কর্মী।

দলীয় নেতাদের তৈরী মানবঢালের কারণে অল্পের জন্য রক্ষা পান বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা। আহত ৫ শতাধিক নেতা-কর্মী এখনো শরীরে বয়ে বেড়াচ্ছেন স্পিন্টারের সেই যন্ত্রণা। অনেকেই মানবেতর জীবন যাপন করছেন। এখনও ধরা-ছোঁয়ার বাইরে এ ঘটনার মূল হোতাদের ১৮ জন। আর জেলে আছেন ৩১ জন।

২১শে আগস্টের পরিকল্পনাকারী এবং রাষ্ট্রীয়ভাবে মদদদাতা তৎকালীন ক্ষমতাশীল বিএনপি নেতারা একে দুর্ঘটনা হিসেবে দেখছেন। খোদ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া তো সংসদে দাঁড়িয়েই বলেছিলেন- শেখ হাসিনা নিজেই ভ্যানিটি ব্যাগে করে গ্রেনেড বয়ে নিয়ে গেছেন জনসভায়!

দলের সিনিয়র নেতা রুহুল কবির রিজভীও বলেছেন, তারেক রহমানকে ফাঁসাতে এই হামলায় তার নাম জড়ানো হয়েছে। এই হামলা আওয়ামী লীগের পরিকল্পিত। নইলে শেখ হাসিনা মারা গেলেন না কেন, এত গ্রেনেড হামলার পরেও!

আর বিএনপির নেতা খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, পৃথিবীর অনেক দেশের রাজনীতিতে এরকম দুর্ঘটনা ঘটে থাকে। পুরনো ইতিহাস নিয়ে এতো আলোচনার কিছু নেই!

তার মতে, এগুলো কোনো ঘটনাই না। পৃথিবীর বহু জাতির জীবনে বহু দুর্ঘটনা ঘটে। পৃথিবীর বহু দেশে এ রকম দুর্ঘটনা আছে। এটা নিয়ে কোনো জাতি সারাজীবন কান্নাকাটি করেনি। এগুলো কোনো বিষয়ই না এখন। বর্তমান প্রেক্ষপটে দাঁড়িয়ে এগুলো কোন বিষয়বস্তু নয়।

দেশে বিরাজমান রাজনৈতিক বিভক্তির পেছনে ইন্ধন যোগানোর আরেকটি দিন ২১শে আগস্ট। এ ঘটনার মামলায় যারা আসামি হয়েছেন তাদের অধিকাংশই বিএনপি নেতা। আর তাই প্রসঙ্গটি এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে বিএনপি।

প্রতিবেদন:

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।