৯ দিনে ৮ বার জ্বালানি তেলের দাম বাড়লো ভারতে

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ভারতে আবারও বাড়ানো হয়েছে পেট্রোল-ডিজেলের দাম। এ নিয়ে গত ৯ দিনে ৮ বার বাড়ানো হলো জ্বালানি তেলের দাম।

মঙ্গলবার (২৯শে মার্চ) দেশটিতে পোট্রোল-ডিজেলের দাম লিটারপ্রতি ৮০ পয়সা বাড়ানো হয়েছে। এ নিয়ে ৮ বারে মোট ৫ টাকা ৬০ পয়সা বাড়ানো হলো পোট্রোল-ডিজেলের দাম।

ভারতে যেহেতু পেট্রোল-ডিজেলের ওপর প্রতিটি রাজ্য আলাদা করে শুল্ক বসায়, তাই রাজ্যভেদে পেট্রোল-ডিজেলের দাম আলাদা। দিল্লিতে পোট্রোল লিটারপ্রতি ১০১ টাকা ০১ পয়সা হলেও মুম্বাইতে দাম হলো ১১৫ টাকা ৮৮ পয়সা, কলকতায় ১১০ টাকা ৫২ পয়সা। কলকাতায় ডিজেলের দাম হয়েছে ৯৫ টাকা ৪২ পয়সা।

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-সহ বিরোধী মুখ্যমন্ত্রীরা তেলের দাম বাড়ার প্রতিবাদে সোচ্চার হয়েছেন। আর বিজেপির পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, রাজ্য সরকারগুলো শুল্ক কমালেই তেলের দাম কমবে।

কংগ্রেসসহ বিরোধী দলগুলোও প্রতিবাদ জানিয়েছে। কিন্তু তাতে তেলের দাম বৃদ্ধি ঠেকানো যায়নি।

রেকর্ড: গরমের শুরুতেই দিল্লির তাপমাত্রা ৪২ ডিগ্রি

গরমের সবে শুরু। তাতেই দিল্লির তাপমাত্রা ৪০ ছাড়িয়ে ৪২ ডিগ্রি সেলসিয়াসে উঠে গেল। বছরের এই সময়ে এতটা উষ্ণ থাকে না রাজধানী শহর। কিন্তু বৈশ্বিক উষ্ণায়নের প্রভাবে কিছুদিন হলো আবহাওয়া আর আগের মতো নিয়ম মেনে চলছে না।

আবহাওয়া অফিস থেকে জানানো হয়েছে, দিল্লির নারেলাতে তাপমাত্রা ছিল ৪২ ডিগ্রি, যা স্বাভাবিকের থেকে ১০ ডিগ্রি বেশি। বাকি দিল্লিতে তাপমাত্রা ছিল মূলত ৪১ থেকে ৪২ ডিগ্রির মধ্যে। ন্যূনতম তাপমাত্রা ছিল ২২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

বাতাসে আর্দ্রতার পরিমাণ কম ছিল। ফলে শুকনো গরমে দিল্লিবাসীর অবস্থা এখন থেকেই খারাপ হতে শুরু করেছে। আবহাওয়া অফিসের মতে, আরও কয়েকদিন এরকম আবহাওয়া চলবে।

কেন এত গরম?

আবহাওয়া অফিসের মতে, মার্চে এবার বৃষ্টি হয়নি। সাধারণত, মার্চে বৃষ্টি বা ঝড় হলে আবহাওয়া ঠাণ্ডা থাকে। সেটা না হওয়ায় গরম এত বেড়ে গেছে।

তবে দিল্লির আবহাওয়া নিশ্চিতভাবেই আগের তুলনায় বদলে যাচ্ছে। এবার দীর্ঘদিন ধরে প্রবল শীত সহ্য করতে হয়েছে দিল্লিবাসীকে। আবার মার্চেই ৪২ ডিগ্রি গরমের ধাক্কা সামলাতে হচ্ছে।

আবহাওয়া অফিস বলেছে, তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রির নীচে এখনই নামছে না।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।