আন্দোলনের নামে দেশজুড়ে ওমিক্রন-ডেল্টা ছড়াচ্ছে বিএনপি

0

স্পেশাল করেসপন্ডেন্স:

দেশে করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধির ধারাবাহিকতায় দৈনিক শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে। সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় ৯ হাজার ৬১৪ জনের নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এই সময়ে মৃত্যু হয়েছে ১৭ জনের। আগের দিনের তুলনায় শনাক্তের সংখ্যা ও হার বেড়েছে, বেড়েছে মৃত্যুর সংখ্যাও।

দেশে যখন করোনার প্রকোপ পুনরায় বাড়তে শুরু করেছে, ঠিক এমন সময় জনগণের পাশে না দাঁড়িয়ে খালেদা জিয়াকে নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে বিএনপির নেতারা। দেশের মানুষের স্বাস্থ্য নিরাপত্তার কথা না ভেবে বিএনপি নেতারা খালেদার নামে বিভিন্ন জায়গায় সমাবেশ করছেন, নেতা-কর্মীদের জড়ো করছেন। ফলে বাড়ছে সংক্রমণের ঝুঁকি।

করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন ছড়িয়ে পড়েছে দেশের বিভিন্ন স্থানে। করোনার এই ধরন অতিসংক্রামক। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম জানিয়েছেন, রাজধানী ঢাকায় ওমিক্রনের সংক্রমণ বেশি ঘটেছে। তবে ঢাকার বাইরে এখনো করোনার ডেল্টা ধরনের সংক্রমণ ঘটছে।

সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে এরই মধ্যে বিধি-নিষেধ আরোপ করেছে সরকার। সব ধরনের সামাজিক, রাজনৈতিক, ধর্মীয় অনুষ্ঠান-সমাবেশ বন্ধসহ ১১ দফা নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এসব নির্দেশনা না মানলে পরিস্থিতি ভয়াবহ হবে বলে সতর্ক করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

এদিকে সরকারের গৃহীত নানা পদক্ষেপের বিপরীতে বিএনপি চালিয়ে যাচ্ছে নিজেদের কর্মসূচি। দলের নেতৃবৃন্দ সুস্থ হয়ে ওঠা খালেদা জিয়াকে নিয়ে ব্যস্ত। দেশ গোল্লায় গেলেও তাদের কোনো মাথাব্যথা নেই। মির্জা ফখরুলদের চোখে গোটা দেশ একদিকে আর খালেদা জিয়া আরেক দিকে। এখনও তারা খালেদা জিয়াকে বিদেশ পাঠাতে মরিয়া।

শুধু তা-ই নয়, এসব বিধি-নিষেধ উপেক্ষা করে সমাবেশের আয়োজন করা হচ্ছে বিভিন্ন স্থানে। দলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী তো বলেই ফেলেছেন, সরকার বিধি-নিষেধ আরোপ করছে মূলত বিএনপিকে সভা-সমাবেশ করতে না দেওয়ার জন্য। বিএনপিকে দমন করতেই সরকারের এসব নিষেধাজ্ঞা, আর কিছুই নয়।

তার মন্তব্যের প্রেক্ষিতে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি আসলে সভা-সমাবেশ করতে নয়, দেশজুড়ে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে দিতেই মূলত আগ্রহী।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, বিএনপি আসলে দেশ ও দশের কথা চিন্তা করে না। যার প্রমাণ অতীতেও পাওয়া গেছে। নেত্রীকে নিয়ে তারা ব্যস্ত। অথচ তারা বিএনপিকে জনবান্ধব রাজনৈতিক দল হিসেবে দাবি করে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।