মাঝরাতে ফোনে রিজভীর লম্বা আলাপে বিরক্ত নারী নেত্রীরা!

0

স্পেশাল করেসপন্ডেন্স:

কর্মসূচির নামে দিন-রাত দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রিজভী আহমেদের মেসেজ ও ফোনের কারণে বিরক্ত মহিলা দলের সভাপতি ও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের স্ত্রী আফরোজা আব্বাস।

এ নিয়ে দলের ভেতরে চলছে নানা কানাঘুষা। যদিও বিষয়টি নিয়ে এখনও মন্তব্য করেননি আফরোজা।

মহিলা দল সূত্রে জানা যায়, বিভিন্ন সময়ে আন্দোলন কর্মসূচিতে উপস্থিত থাকার চেষ্টা করেন দলীয় কর্মী-সমর্থকরা। বিগত সময়ে রাজপথে তারা বেশ কিছু মিছিলও করেছে। তা সত্ত্বেও বারবার মহিলা দলের নেতাদের মেসেজ ও ফোন দিয়ে ‘বিরক্ত’ করেন দলের শীর্ষ নেতা রুহুল কবির রিজভী।

এ নিয়ে মহিলার দলের পক্ষ থেকে বিএনপি মহাসচিবকেও জানানো হয়েছে বলে দলের ভেতরের একটি সূত্র জানিয়েছে।

সর্বশেষ গত ১২ই জানুয়ারি গভীর রাতেও আফরোজা আব্বাসকে ফোন দিয়ে আন্দোলনের প্রস্তুতি নেয়ার কথা বলেন রিজভী। যদিও আগের দিন এ ব্যাপারে দলের পক্ষ থেকে সব কর্মসূচির কথা জানিয়ে দেয়া হয়েছিল।

সেদিন রাতে ফোনে রিজভীর ওপর ক্ষেপে যান আফরোজা আব্বাস। যদিও মির্জা আব্বাস যাতে বিষয়টি জানতে না পারেন, সেজন্য ব্যাপারটি আর বাড়তে দেননি।

মহিলা দলের এক কেন্দ্রীয় নেত্রী নাম না প্রকাশের শর্তে বলেন, বিষয়টি জানাজানি হলে দলের ভেতরে সমস্যা হবে, তাই এ নিয়ে আফরোজা আপা আর বাড়াতে চাননি। তবে এরপরও রিজভী ভাই এমন আচরণ ত্যাগ না করলে তারেক রহমানকে বিষয়টি জানানো হবে বলেও আপা আমাকে বলেছেন।

এদিকে মহিলা দলের অপর এক নেত্রী বলেন, রিজভী ভাইয়ের এই অভ্যাসটা পুরনো। মহিলা দল সবসময় দলের সব কর্মসূচিতে সক্রিয় থাকলেও তিনি অযথাই মেসেজ দিয়ে বা কল দিয়ে বিরক্ত করেন। ইদানীং এমনিতেও আফরোজা আপা অসুস্থ। রাতে ঘুমানোর সময় তাকে ফোন দিলে তিনি বিরক্ত হবেন, এটাই স্বাভাবিক।

এ বিষয়ে রিজভী আহমেদের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। বাংলানিউজব্যাংক।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।