তাবলিগে আসা ২ ভারতীয়সহ ৪ জনের করোনা, অ’স্বীকার আমিরের!

0

পটুয়াখালী প্রতিনিধি:

তাবলিগ জামাতে আসা ২ ভারতীয় নাগরিকসহ পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় প্রথমবারের মত ৪ জনের করোনা ভাইরাসের সংক্র’মণ শনাক্ত হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক মো. মতিউল ইসলাম চৌধুরী এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেন। যদিও পরীক্ষার ফলাফল মানতে রাজি নন তাবলিগ জামাতের উপজেলা আমির।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গত ১৮ এপ্রিল এই উপজেলা থেকে ১২ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এরমধ্যে ৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়। তাদের মধ্যে তাবলিগ জামাতে আসা ২ জন ভারতের বিহারের নাগরিক এবং ১ জন পাবনা জেলার। এ ছাড়া ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে নিয়োজিত এক উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিক্যাল অফিসারেরও করোনা শনাক্ত হয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মঙ্গলবার বিকাল পর্যন্ত করোনা শনাক্ত হওয়ায় তাবলিগ জামাতের ওই ৩ ব্যক্তি উপজেলার ছোট বাইশদিয়া ইউনিয়নের ফুলখালী গ্রামে অবস্থিত মারকাজ মসজিদে কোয়ারান্টাইনে রয়েছেন। তাবলিগ জামাতের উপজেলা আমির মো. ফয়সাল আহম্মেদ করোনার কথা অ’স্বীকার করে বলেন, তাবলিগ জামাতে আসা ওই ৩ জন ব্যক্তির মধ্যে করোনা লক্ষণ (উপসর্গ) নেই। তারা পুরোপুরি সুস্থ। সুতরাং পুনরায় তাদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার দাবি জানাচ্ছি।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাশফাকুর রহমান বলেন, রাঙ্গাবালীতে প্রথমবারের মত ৪ জন করোনা শনাক্ত হয়েছে। তাদেরকে শিগগিরই আইসোলেশনে নেওয়া হবে। ঝুঁ’কি এড়াতে এ উপজেলাকে পুরোপুরি লকডাউন করা হবে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

লুকিয়ে থাকা তাবলিগের কারো খবর দিলেই মিলবে ১০ হাজার রুপি

ভারতজুড়ে চলমান লকডাউনের মধ্যে গা ঢাকা দিয়ে আছেন দিল্লীর তাবলিগ জামাতে অংশগ্রহণকারী কয়েকজন সদস্য। তাদের বিরু’দ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছে পুলিশ। সেই সাথে লুকিয়ে থাকা সদস্যদের খোঁজ দিলেই ১০ হাজার রুপী পুরস্কারের ঘোষণা দিয়েছে পুলিশ।

বারবার অনুরোধ সত্ত্বেও দিল্লি থেকে ফেরার দিন পনেরো পরেও ওই তাবলিগ জামাতের সদস্যরা করোনা পরীক্ষার জন্য পুলিশের দ্বারস্থ হননি। উল্টো পুলিশের নজর এড়াতে পালিয়ে গেছেন। এ ঘটনার জের ধরে আর্থিক পুরস্কারের ঘোষণা করা হয়েছে।

পুলিশের কানপুর রেঞ্জের আইজি মহিত আগরওয়াল বলেন, এখনও সময় আছে। নিজে থেকে ওরা এসে যদি পুলিশের সঙ্গে সহযোগিতা করে, তো ভালো। না হলে, কড়া পদক্ষেপ করা হবে।

দেশজুড়ে করোনার লকডাউন শুরু হওয়ার কিছুদিন আগে সব নিষে’ধাজ্ঞা অ’মান্য করে দিল্লীতে তাবলিগ জামাত অনুষ্ঠিত হয়। দেশ-বিদেশ থেকে জামাতের সদস্যরা এসে ওই সমাবেশে যোগ দেন। এই তাবলিগ জামাত থেকে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রা’ন্ত হয়েছেন অনেক মানুষ। সেই সাথে করোনায় প্রাণহা’নি হয়েছে অনেকের। এরই মধ্যে এই সংগঠনের প্রধানকে গ্রেপ্তারেরও দাবি ওঠেছে বিভিন্ন সময়। সূত্র: এই সময়, দ্য টাইমস অফ ইন্ডিয়া

Spread the love
  • 200
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    200
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।