ত্রাণ বিতরণে দুর্নীতি ঠেকাতে চালু হচ্ছে কিউআর কার্ড

0

বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি ডেস্ক:

সারা দেশে সরকারি ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম সহজ করতে তথ্যভাণ্ডারসহ সফটওয়্যার তৈরি করবে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের আওতাধীন এটুআই প্রোগ্রাম। শুধু তাই নয়, ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে ত্রাণের জন্য নিবন্ধিত ব্যক্তিদের ছবি ও পরিচয়পত্রের সাহায্যে কিউআর কোডযুক্ত একটি কার্ডও তৈরি করে দেবে তারা।

এসব কার্ড মোবাইল ফোনে স্ক্যান করলেই নিবন্ধিত ব্যক্তির পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার পাশাপাশি সেই ব্যক্তির ত্রাণ পাওয়ার পরিমাণ তথ্যভাণ্ডারে স্বয়ংক্রিয়ভাবে জমা হবে। ফলে একই ব্যক্তি বিভিন্ন স্থানে একাধিকবার ত্রাণ নিতে পারবেন না এবং ত্রাণ বিতরণের বিভিন্ন অ’নিয়মও প্রতিরোধ করা যাবে।

গত রবিবার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। অনলাইনে অনুষ্ঠিত এ বৈঠকে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহেমদ এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমানসহ দুটি মন্ত্রণালয়ের শীর্ষ কর্মকর্তারা অংশ নেন।

১ জনকে ত্রাণ দিতে ১৬ জনের জটলা!

দু’স্থ মানুষকে ত্রাণ দিতে গিয়ে অনেকেই আগ্রহী ছবি তোলা ও প্রচারণার। আর সে কারণে ত্রাণ গ্রহীতা দরিদ্রদের লাইনে দাড় করিয়ে সামাজিক দূরত্ব রক্ষা সম্ভব হলেও বিপদ দাতাদের নিয়ে। ক্যামেরার ফ্রেমে থাকতে একজনকে ত্রাণ দিতে হাত বাড়িয়ে দিচ্ছেন ১৬ জন। যারা একটু দূরে পড়ছেন তারাও জটলা করে দাড়াচ্ছেন নূন্যতম শারীরিক দূরত্ব না রেখে। এমন পরিস্থিতি করোনা ভাইরাস সংক্র’মণের ঝুঁ’কি বাড়াচ্ছে বলেই প্রতীয়মান।

মঙ্গলবার সকালে সিরাজগঞ্জের চৌহালীতে ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে দেখা যায় এমনই ভ’য়াবহ দৃশ্য, যেখানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিজেই।

সূত্র জানায়, চৌহালী উপজেলার উমরপুরের বাসিন্দা ঢাকার ওয়াটা কেমিক্যাল লিমিটিডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম। তিনি চরাঞ্চলের কর্মহীন অ’সহায় ৯ হাজার পরিবারকে খাদ্যসামগ্রী দেবেন বলে প্রস্তুতি নিয়েছেন। তারই প্রথম ধাপে মঙ্গলবার সকালে ১ হাজার মানুষকে সহায়তা দেয়া হয়। চৌহালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের সামনে ত্রাণ বিতরণের আয়োজন করা হয়।

প্রত্যেক পরিবারকে ৮ কেজি চাল, ১ কেজি চিনি, ১ লিটার সয়াবিন তেল ও ১ কেজি ছোলা দেয়া হয়। এসব প্যাকেট হস্তান্তর করতে উপস্থিত ছিলেন- ওয়াটা কেমিক্যাল লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম, চৌহালী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফারুক হোসেন সরকার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেওয়ান মওদুদ আহমেদ,

উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আবু নজির মিয়া, সিদ্ধিরগঞ্জ পৌরসভার সাবেক মেয়র আলহাজ আব্দুল মতিন প্রধান, উমরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলহাজ আব্দুল মতিন মন্ডল, ওয়াটা কেমিক্যাল লিমিটেডের পরিচালক প্রকৌশলী এ এইচ এম আব্দুল্লাহ, মাহমুদুল হাসান মাসুদ প্রমূখ।

Spread the love
  • 106
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    106
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।