এবার সরকারি চালসহ বিএনপি সমর্থিত ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার

0

বগুড়া প্রতিনিধি:

বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ উপজেলায় সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ৩৩০ কেজি চালসহ মাঝিহট্ট ইউনিয়নের বিএনপি সমর্থিত চেয়ারম্যান মির্জা গোলাম হাফিজ সোহাগকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বুধবার (১৫ এপ্রিল) সন্ধ্যায় উপজেলার দামগাড়া গ্রামের বাড়ি থেকে চালসহ তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। শিবগঞ্জ থানার ওসি মিজানুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, ইউপি চেয়ারম্যান মির্জা গোলাম হাফিজ সোহাগ মাঝিহট্ট ইউনিয়নের দামগাড়া গ্রামের সেকেন্দার আলীর ছেলে। তিনি ওই ইউনিয়নের বিএনপি সমর্থিত চেয়ারম্যান।

শিবগঞ্জ থানা পুলিশ বুধবার সন্ধ্যায় গোপনে খবর পেয়ে তার বাড়িতে অভিযান চালান। তল্লাশি করে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ৩৩০ কেজি চাল পাওয়া যায়। চালগুলো উদ্ধার করার পর তাকে গ্রেপ্তার করে থানায় আনা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসা’বাদে তার দেওয়া তথ্যে পুলিশ আরও চাল উদ্ধার অভিযানে নামে।

চন্দনাইশে ইমামের কক্ষ থেকে ৫০ বস্তা পেঁয়াজ উদ্ধার!

চন্দনাইশে মসজিদের ইমামের কক্ষে পেঁয়াজ মজুদ করেও শেষ রক্ষা হয়নি অ’সাধু ব্যবসায়ীর। রমজান মাসে বিক্রি করার উদ্দেশ্যে পেঁয়াজ মজুদ করলেও স্থানীয়দের সহায়তায় তা জ’ব্দ করেছে প্রশাসন।

ঘটনাটি ঘটেছে চন্দনাইশ পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড এলাকার সাতবাড়িয়া যতরকুল জামে মসজিদে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মসজিদের ইমাম মাহামুদুল ইসলামের কক্ষে মসজিদ কমিটির অ’গোচরে জহিরুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি এই পেঁয়াজ মজুদ করেছেন রমজান মাসে বিক্রি করার উদ্দেশ্যে।

বুধবার (১৫ এপ্রিল) দুপুরে এলাকাবাসী বিষয়টি জানতে পেরে প্রথমে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে পেঁয়াজগুলো জ’ব্দ করে।

পরে চন্দনাইশ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ইমতিয়াজ হোসেন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে ব্যবসায়ী জহিরুল ইসলামকে ৫ হাজার টাকা জরি’মানা ও পেঁয়াজগুলো জ’ব্দ করেন।

জ’ব্দকৃত পেঁয়াজগুলো পরে করোনার কারণে ঘরব’ন্দী হয়ে পড়া দরিদ্র ও শ্রমজীবীদের মাঝে বিতরণ করা হবে বলে জানান চন্দনাইশ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ইমতিয়াজ হোসেন।

Spread the love
  • 116.4K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    116.4K
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।