ইউপি সদস্যের ঘরের মেঝের নিচে ‘চালের খনি’‌

0

ভোলা প্রতিনিধি:

মাটি খুঁড়ে অনেক জায়গায় সোনার খনি, রূপার খনি কিংবা মূল্যবান ধনরত্ন পাওয়ার কথা শোনা যায়। তবে এবার ঘরের মেঝের নিচে পাওয়া গেছে ‘চালের খনি’‌! ঘটনাটি ভোলার লালমোহন উপজেলার বদরপুর ইউনিয়নের। এক ইউপি সদস্যের ঘরের মেঝে খুঁড়ে সরকারি চাল উদ্ধার করেছে পুলিশ।

আজ রবিবার (১২ এপ্রিল) সকালে জাতীয় জরুরী পরিষেবার হটলাইন নাম্বার ৯৯৯-এ কে বা কারা গোপন সংবাদ দেয়। সেখান থেকে নির্দেশ পাঠানো হয় লালমোহন থানা পুলিশের কাছে। তথ্য মোতাবেক তাৎক্ষণিক পুলিশ বদরপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড সদস্য জুয়েলের ঘরে উপস্থিত হয়। সেখানে খাটের নিচে মেঝে খুঁড়ে ৭ বস্তা চাল উদ্ধার করে। এছাড়া ওই ওয়ার্ডের চৌকিদার শাহ আলমের ঘর থেকে আরও ৬ বস্তা চাল উদ্ধার করা হয়। এসব চাল সরকারি খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির (এএমএস)।

পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ইউপি সদস্য জুয়েল পালিয়ে গেলে তার বাবা সাবেক ইউপি সদস্য নান্নুকে জিজ্ঞাসা’বাদের জন্য পুলিশ আটক করেছে।

লালমোহন থানার ওসি মীর খায়রুল কবীর জানান, রবিবার সকাল ৬টার দিকে ৯৯৯ থেকে ফোন পাই। আমাদেরকে তথ্য দেয়া হয়, বদরপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড সদস্য জুয়েলের ঘরে মাটির নিচে চাল লুকিয়ে রাখা হয়েছে। পরে আমরা ওই বাড়িতে অভিযান চালাই। এ সময় জুয়েলের ঘরের খাটের নিচ থেকে মাটি খুঁড়ে ৫ বস্তা চাল ও ঘরের পেছন থেকে আরও ২ বস্তা চাল উদ্ধার করি। জুয়েলকে না পাওয়ায় তার বাবা নান্নুকে জিজ্ঞাসা’বাদের জন্য আটক করা হয়েছে। একইসঙ্গে সরকারি খাদ্য অধিদপ্তরের নাম লেখা ৭টি খালি বস্তা ও ৭টি ওএমএস কার্ড পাওয়া যায় ওই ঘর থেকে।

জানা গেছে, একদিন আগে শনিবার একই ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড সদস্য ওমর এর এলাকা থেকে বিভিন্ন বাড়িতে ও স’মিলের কাঠের গুঁড়োর মধ্যে লুকিয়ে রাখা আরও ১৫ বস্তা চাল উদ্ধার করা হয়।

ওই ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যান ফরিদুল হক তালুকদার, তার ভাতিজা ওয়ার্ড সদস্য ওমরসহ ৪ জনকে আসামি করে মামলা হয়। ওমরকে পুলিশ গ্রেপ্তার করলে জেল হাজতে পাঠান আদালত।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।