সৌদিতে সব মসজিদে জুমাসহ ৫ ওয়াক্ত নামাজ বন্ধ হলো

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ইসলামের পবিত্রস্থানগুলো বাদে সৌদি আরবের সব মসজিদে নামাজ পড়া বন্ধ ঘোষণ করা হয়েছে। প্রাণঘা’তী করোনা ভাইরাস ঠেকাতে জোর চেষ্টার অংশ হিসেবে মঙ্গলবার এমন উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

এএফপি ও আল-আরাবিয়াহর খবরে বলা হয়, মসজিদে শুক্রবারের জুমাসহ দিনের ৫ ওয়াক্ত নামাজ আপাতত বন্ধ থাকবে। তবে আজান নিয়মিতই দেয়া হবে বলে জানিয়েছে।

মুসল্লিদের বাড়িতে থেকেই নামাজ পড়তে অনুরোধ করা হয়েছে। মসজিদুল হারাম ও মসজিদে নববীর ক্ষেত্রে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হবে না।

মক্কাভিত্তিক মুসলিম ওয়ার্ল্ড লিগের মহাসচিব মোহাম্মদ আল-ইসা বলেন, ইসলামি শরিয়া প্রণিত বিধান অনুসারে এটাই এখন ধর্মীয় দায়িত্ব। এটাই সাধারণ নিয়ম হওয়া উচিত।

আল-ইসা বলেন, যার মুখ থেকে গন্ধ আসছে, ইসলামি শরিয়ায় তাকে জামাতে যেতে না বলা হয়েছে। সেখানে কেউ যদি প্রাণঘা’তী ভাইরাসে আক্রা’ন্ত হন, যাতে অন্যদেরও আক্রা’ন্ত হওয়ার শ’ঙ্কা রয়েছে, সেক্ষেত্রে এর কোনো ব্যতিক্রম কিছু না।

সৌদি আরবের সর্বোচ্চ ধর্মীয় কর্তৃপক্ষ ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বৈঠকের পর নতুন এই সিদ্ধান্ত এসেছে। সৌদিতে এখন পর্যন্ত ১৭১ জন করোনা ভাইরাসে আক্রা’ন্ত হয়েছেন। কিন্তু কারও মৃ’ত্যু ঘটেনি।

উহানের স্বাস্থ্যকর্মীরা বাড়ি ফিরছেন বীরের বেশে

চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরের স্বাস্থ্যকর্মীরা দীর্ঘ ২ মাসেরও বেশি সময় ধরে করোনা ভাইরাসের সাথে ল’ড়ে বিজয়ীর বেশে ঘরে ফিরতে শুরু করেছেন। কঠোর পরিশ্রমের বিনিময়ে প্রাণঘা’তী এ ভাইরাসের হাত থেকে জাতিকে রক্ষা করায় তারা পাচ্ছেন বীরের সম্মান।

চীনের বিভিন্ন প্রদেশ থেকে আসা স্বাস্থ্যকর্মীরা মঙ্গলবার থেকে আনুষ্ঠিকভাবে উহান থেকে বিদায় নিতে শুরু করেন। খবর চায়না ডেইলির।

উহান শহরের ৭টি হাসপাতাল এবং ১৪টি অস্থায়ী হাসপাতালে প্রায় ৬৮ হাজার স্বাস্থ্যকর্মী বিভিন্ন প্রদেশ থেকে এসে এখানে করোনা ভাইরাসে আক্রা’ন্তদের সেবা করেন।

মার্চ মাসের শুরু থেকে চীনের উহানে করোনা ভাইরাসের প্র’কোপ কমে যাওয়ায় দিনদিন আক্রা’ন্তের সংখ্যা কমতে থাকে। ফলে বন্ধ হতে থাকে করোনা ভাইরাসের চিকিৎসা দিতে তৈরি করা অস্থায়ী হাসপাতালগুলো।

এর আগে করোনা ভাইরাসের উৎপত্তিস্থল উহান শহরে এর প্র’কোপ এতটাই ভ’য়াবহ অবস্থায় যায় যে বিশালসংখ্যক করোনা আক্রা’ন্ত রোগীর চিকিৎসাসেবা দিতে বেগ পেতে হয় এখানকার স্বাস্থ্যকর্মীদের। ফলে চীনের স্বাস্থ্য মন্ত্রাণালয় জরুরি ভিত্তিতে চীনের বিভিন্ন স্থান থেকে স্বাস্থ্যকর্মীদের উহান শহরে পাঠায়।

করোনা ভাইরাসে আক্রা’ন্তদের সেবা করতে গিয়ে অনেক স্বাস্থ্যকর্মীই এ ভাইরাসে আক্রা’ন্ত হন এবং অনেকের প্রাণহা’নির ঘটনাও ঘটে।

Spread the love
  • 615
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    615
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।