করোনার হুজুগে ভারতে মুরগির কেজি ১০ টাকা! (ভিডিও)

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

গোটা বিশ্বকেই ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাস। পরিস্থিতিকে বৈশ্বিক ম’হামারী ঘোষণা করেছে বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা। একের পর এক দেশ নিজেদের বিছি’ন্ন করে নিয়েছে।

এদিকে করোনা প্রতিরো’ধে নানা গুজব ছড়ানো হচ্ছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে ব্যবহার করে এসব গুজব ছড়িয়ে পড়েছে। তেমনি এক গুজবের জেরে ১৫০ টাকার মুরগির দাম ১০ টাকায় নেমে এসেছে। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মহারাষ্ট্রে।

সেখানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব রটেছে, মুরগি ও ছাগল করোনার জীবাণু বহন করে। এমনকি মুরগির ডিমের কুসুমেও করোনার অস্তিত্ব রয়েছে। এমন গুজবের কারনে বর্তমানে মুরগি ও ডিম খাওয়া কমিয়ে দিয়েছেন ভারতীয়রা। ফলে মাত্র ১০ রুপিতেই আস্ত একটি মুরগি পাওয়া যাচ্ছে সেখানে।

এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। যেখানে দেখা গেছে, মুরগি হাতে নিয়ে বাজারে ১০ রুপি হাঁকছেন বিক্রেতারা।

ভারতের সংবাদমাধ্যম দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানিয়েছে, করোনার কারনে ৯০ শতাংশ লসে পড়েছে ভারতের মহারাষ্ট্রের পোলট্রির ব্যবসায়ীরা। কয়েক সপ্তাহ আগেও ৮০ থেকে ৯০ টাকার মধ্যে ১ কেজি মুরগি পাওয়া যেত সেখানে। এখন ১০ টাকায় মিলছে প্রতিটি মুরগি।

এ বিষয়ে পুনের এক পোলট্রি ফার্মের মালিক প্রমোদ হিঙ্গে বলেন, করোনার কারনে মুরগির চাহিদা একেবারে নিম্মগামী। মুরগির দাম এতই কমেছে যে আমার প্রায় ১০ কোটি টাকার লস হয়েছে। বাজারে মুরগির চাহিদা না থাকায় নামমাত্র দামে মুরগি বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছি।

প্রমোদ হিঙ্গের মতো সর্বস্বান্ত হয়েছেন মহারাষ্ট্রের আরো অনেক পোলট্রি চাষী। মোট ৭০০ কোটি টাকার লসের সম্মুখীন হয়েছেন তারা। বর্তমানে ১০ থেকে ২০ টাকায় প্রতি কেজি মুরগি বিক্রি করছেন তারা।

এদিকে করোনা বিস্তারে গুজবে কান না দিতে আহ্বান জানিয়েছেন ভারতের পশুপাল বিভাগ ও ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন। এক বিবৃতিতে সংস্থাটি জানিয়েছে, ‘করোনার বিস্তারে মুরগির কোনো সম্পর্ক নেই।’ এরপরও গুজবে রটানো বন্ধ হচ্ছে না।

এর কারণ হিসাবে সংস্থাটির প্রধান বসন্ত কুমার শেট্টি বলেন, মুরগিতে বার্ড ফ্লুর ঘটনা মানুষ মনে রেখেছে। ওই বিষয়টি নিয়ে আগে থেকেই ভী’ত হয়ে আছে মানুষ। যে কারণে মুরগি থেকে করোনা ভাইরাস ছড়ানো গুজব মানুষ চোখ বন্ধ করে বিশ্বাস করছে।

ভিডিওটি দেখুন-

Spread the love
  • 269
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    269
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।