তারুণ্য ধরে রাখার সবচেয়ে দামি তেল আসে ছাগলের লাদি থেকে!

0

লাইফ স্টাইল ডেস্ক:

বিশ্বের সবচেয়ে দামি তেল আরগান অয়েল। চেহারায় বার্ধক্যের ছাপ দূর করতে এই তেল ব্যবহার করে থাকেন রূপসচেতন লোকজন। ভারতের বাজারে ১ লিটার আরগান তেলের দাম ১৩ হাজার রুপি।

দামি এই তেল তৈরিতে সহায়তা করে বিশেষ প্রজাতির এক ধরণের গেছো ছাগল। মরক্কো ছাড়াও পশ্চিম আলজেরিয়ায় এই গেছো ছাগল দেখতে পাওয়া যায়। আরগান তেলের উৎস আরগান বা আরগানিয়া নামে এক প্রকার গুল্মজাতীয় গাছ। সাধারণত দক্ষিণ-পশ্চিম মরক্কোর সোয়াস ভ্যালিতে এই গাছ জন্মে।

এই গাছের ফল রসালো, সুস্বাদু ও পুষ্টিকরও। দেখতে ডিম্বাকার এই ফল খেতে তেতো লাগে। এখানকার স্থানীয় বাসিন্দারা আরগান গাছের চাষ করে থাকেন। এই গাছে গেছো ছাগল থাকে।

এই ছাগলগুলো গাছে চড়ে বীজসহ পাকা ফল খেয়ে ফেলে। কিন্তু বীজগুলো হজম না হওয়ায় সেগুলো তাদের মলের সঙ্গে বেরিয়ে আসে। স্থানীয় বাসিন্দারা সেই বীজগুলো শুকিয়ে তেল বের করেন।

আরগান ফলের বীজ থেকে পাওয়া তেল ত্বক ও চুলের পরিচর্যায় ব্যবহার হয়। এই তেলের বিশেষ ‘অ্যান্টি এজিং’ কার্যকারিতার জন্যই গোটা বিশ্বে এর চাহিদা তুঙ্গে। বাণিজ্যিকভাবে আরগান তেল বিদেশে রপ্তানি করা হয়। আর অনলাইনেও পাওয়া যায় এই তেল। তথ্যসূত্র: জিনিউজ।

করোনা মোকাবেলায় ২ কোটি ডলার দান করছে ফেসবুক

করোনা ভাইরাসে প্রাণহা’নির সংখ্যা বেড়েই চলেছে। এখন পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী মৃ’ত্যুর সংখ্যা ৫ হাজার ৮৩৯ জনে পৌঁছেছে। আক্রা’ন্তের সংখ্যা পৌঁছেছে ১ লাখ ৫৬ হাজার ৫৫৮ জনে।

করোনা ঠেকাতে সারাবিশ্ব যখন মরিয়া, তখন করোনা মোকাবেলায় ২০ মিলিয়ন বা ২ কোটি মার্কিন ডলার দানের প্রতিশ্রুতি দিল ফেসবুক। এখনেই শেষ নেই, ফেসবুকের পক্ষ থেকে ইউনাইটেড নেশনস ফাউন্ডেশন ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) সঙ্গে একত্রে ‘কোভিড-১৯ সলিডারিটি রেসপন্স ফান্ড’ চালু করা হয়েছে। এ তহবিলে যে কেউ দান করতে পারবে।

শুক্রবার ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ এক পোস্টে এ তথ্য জানিয়েছেন। করোনা ভাইরাস মোকাবেলার ফেসবুক কর্তৃপক্ষ শুক্রবার তাদের বার্ষিক মুনাফার কিছু অংশ দেয়ার সিদ্ধান্ত জানায়। জাকারবার্গ তার পোস্টে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, ফেসবুকের দান করা ১০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের সঙ্গে তহবিলে দান হিসেবে আসা সম্পূর্ণ অর্থ বিশ্বজুড়ে সরাসরি করোনা মোকাবেলা, শনাক্ত ও প্রতিরো’ধের কাজে ব্যয় হবে।

ফেসবুকের বাকি ১০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার যাবে সিডিসি ফাউন্ডেশনে। বেসরকারি এ সংস্থাটি যুক্তরাষ্ট্রে করোনা ভাইরাস ছড়ানো ঠেকাতে আগামী সপ্তাহ থেকে তহবিল সংগ্রহের কাজ শুরু করবে।

Spread the love
  • 42
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    42
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।