ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় রাস্তায় আটকে ছাত্রীকে ধ’র্ষণচেষ্টা, গ্রেপ্তার ২

0

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি:

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বাঞ্ছারামপুরে প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার সময় রাস্তা আটকে এক ছাত্রীকে (১৭) ধ’র্ষণচেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- খাসনগর গ্রামের হেলাল মিয়ার ছেলে মজিবর রহমান (২২) ও ফিরোজ মিয়ার ছেলে মো. ইয়াছিন মিয়া (১৯)। আর শ্লীল’তাহানির শি’কার ওই ছাত্রী স্থানীয় একটি স্কুলের ১০ম শ্রেণির ছাত্রী।

জানা গেছে, গতকাল বিকেলে ওই ছাত্রী প্রাইভেট পড়ার উদ্দেশে বাড়ি থেকে বের হন। এ সময় রাস্তায় আগে থেকেই ওঁৎ পেতে থাকা মজিবর ও ইয়াছিন তার মুখ চেপে ধরে পার্শ্ববর্তী মজিদ মিয়ার বাড়িতে নিয়ে ধ’র্ষণের চেষ্টা চালায়। পরে লোকজন টের পেয়ে এগিয়ে আসলে তারা ওই ছাত্রীকে রেখে পালিয়ে যায়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বাঞ্ছারামপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সালাউদ্দিন চৌধুরী বলেন, এ ব্যাপারে ছাত্রীর মা বাঞ্ছারামপুর মডেল থানায় অভিযোগ দিলে পুলিশ অভিযুক্ত ২ জনকে গ্রেপ্তার করে। আজ সোমবার সকালে তাদের ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

মজিবর ও ইয়াছিন দীর্ঘদিন ধরেই ওই ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করে আসছিলেন বলেও জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা।

রাজশাহীতে কলেজছাত্রীকে যৌ’ন হয়রা’নি, শিক্ষকের বিচার চেয়ে বিক্ষোভ

রাজশাহীতে কলেজছাত্রীকে যৌ’ন হয়রা’নির অভিযোগে এক শিক্ষকের বিচার দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছেন শিক্ষার্থীরা।

গতকাল রবিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কাটাখালি আদর্শ ডিগ্রি কলেজসহ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কয়েকশ শিক্ষার্থী এ কর্মসূচি পালন করেন। তারা অভিযুক্ত শিক্ষক সিরাজুল ইসলামের বিচার দাবিতে রাজশাহী-ঢাকা মহাসড়ক অবরোধ করে রাখেন।

শিক্ষা নিতে কলেজে আসি, ধ’র্ষিত হতে নয়- লেখাসংবলিত ফেস্টুন প্রদর্শন করে কয়েক শিক্ষার্থী জানান, কলেজের প্রভাষক সিরাজুল হক তাদের এক সহপাঠীকে দিনের পর দিন উত্ত্য’ক্ত করাসহ কু’প্রস্তাব দিয়েছেন। এ ছাড়াও তার বিরু’দ্ধে নানা ধরনের কটুকথা শিক্ষার্থীদের মাঝে ছড়িয়েছেন ওই প্রভাষক।

সেই লজ্জায় ওই ছাত্রী (১৫) কলেজে আসা বন্ধ করে দিয়েছেন। শিক্ষার্থী রায়হান, মারুফ হোসেন, হৃদয় ইসলাম ও ইমন জানান, সিরাজুল হকের দ্রুত বিচার আইনে বিচার সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত তারা এ কর্মসূচি চালিয়ে যাবেন।

উল্লেখ্য, কাটাখালি কলেজের মানবিক বিভাগের একাদশ শ্রেণির এক ছাত্রীকে যৌ’ন হয়রা’নির অভিযোগে ওই ছাত্রীর মা গত শুক্রবার রাত ১টার দিকে কাটাখালি থানায় মামলা দায়ের করেন।

এরপর অভিযুক্ত শিক্ষককে শ্যামপুর এলাকার বাড়ি থেকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠায়। কাটাখালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিল্লুর রহমান এর সত্যতা নিশ্চিত করেন।

Spread the love
  • 20
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    20
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।