এবার ডেঙ্গুর ভয়ে টয়লেটে মশারি!

0

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি:

ডেঙ্গুতে থেকে বাঁচতে বাড়ির টয়লেটে মশারি টাঙিয়েছেন সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার নলতা ইউনিয়নের ঘোড়াপোতা গ্রামের বাসিন্দা সুমন হোসেন। এডিস মশা থেকে রক্ষা পেতে তিনি এ কাজ করেছেন।

একই গ্রামের বাসিন্দা ইব্রাহিম হোসেন বলেন, চারপাশে বাগান থাকার কারণে মশার উপদ্রব এখানে বেশি। সে জন্য ডেঙ্গু ও মশাবাহিত অন্যান্য রোগ থেকে তার পরিবারকে রক্ষা করতে সুমন টয়লেটে মশারি ঝুলিয়ে দিয়েছেন।

স্থানীয় নলতা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান বলেন, ইউপি সদস্য ও গ্রাম পুলিশরা প্রতিটি ওয়ার্ডে বাড়ি বাড়ি গিয়ে সচেতনতা ও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান পরিচালনা করছে। স্থানীয় বিদ্যালয়গুলোতে সচেতনতামূলক প্রচারাভিযান অব্যাহত রয়েছে।

কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা তৈয়েবুর রহমান জানান, এখন পর্যন্ত কালীগঞ্জে ১১০ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে ৪ জন। তবে ডেঙ্গুতে উপজেলার শ্রীকলা গ্রামের সিরাজুল গাজীর ছেলে আলমগীর গাজী (১৪) মা’রা গেছেন।

তিনি আরও বলেন, ডেঙ্গুতে আতঙ্কের কিছু নেই। সকলকে সচেতন হতে হবে। সকলকে বাড়ির চারপাশ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা ও মশারি ঝুলিয়ে রাতে ঘুমানোর পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

সাতক্ষীরার সিভিল সার্জন ডা. আবু শাহিন জানান, রোববার পর্যন্ত সাতক্ষীরায় ৩৩৫ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছে। বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছে ৩১ জন। তবে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে কলারোয়া, সাতক্ষীরা সদর, তালা ও কালীগঞ্জ উপজেলায় ৪ জন মা’রা গেছেন।

মা-মেয়ের ধ’র্ষককে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা, পুলিশের গু’লিতে আহত

সিলেটের ওসমানীনগরে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টাকালে মা ও মেয়েকে ধ’র্ষণ মামলার এক আসামি গু’লিবিদ্ধ হয়েছেন। পরে খোকন মিয়া (২৮) নামের ওই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গতকাল রোববার দিবাগত রাত পৌনে ১২টায় উপজেলার বড় ইউসুফপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। গু’লিবিদ্ধ বাগেরহাটের ট্রাকচালক খোকন মিয়াকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ওসমানী নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম আল মামুন জানান, খুলনায় বিয়ের আশ্বাসে এক নারীকে দীর্ঘদিন ধরে ধ’র্ষণ করেন চালক খোকন। বিষয়টি প্রতারণা বুঝতে পেরে ওই নারী বিয়ের জন্য চাপ দেন। এ নিয়ে খোকনের সঙ্গে তার মনোমালিন্য হয়।

এর পর গত ১০ আগস্ট ওই নারীর মেয়েকে বিয়ের আশ্বাস দেখিয়ে সিলেট নিয়ে আসেন খোকন। ওসমানীনগরে বড়ইউসুফপুর গ্রামের এক প্রবাসীর বাসায় রেখে তাকে ধ’র্ষণ করেন। ওই বাসায় খোকনের বাবা জাহাঙ্গীর কেয়ারটেকার হিসেবে থাকতেন। পরে জাহাঙ্গীরের মোবাইল দিয়ে ওই মেয়ে তার মাকে বিষয়টি জানান। গত শনিবার ওই মেয়ের মা সিলেটে এসে মামলা করেন।

ওসি বলেন, গতকাল রাতে বড় ইউসুফপুর গ্রাম থেকে খোকনকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে আসার পথে ১৫/২০ জন লোক পুলিশের গাড়ি থামিয়ে আসামি ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। এ সময় পুলিশ শটগানের গু’লি ছুড়লে খোকন গু’লিবিদ্ধ হয়। পুলিশের এক এসআই ও ২ কনস্টেবলও আহত হয়েছেন।

এ ঘটনায় একটি অ্যাসাল্ট মামলা দায়ের করা হয়েছে। খোকনের বাবা জাহাঙ্গীরকে আটক করা হয়েছে বলেও জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা।

Spread the love
  • 53
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    53
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।