সৌদিতে এখন থেকে নামাজের সময় খোলা রাখা যাবে দোকান

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

শিথিল হচ্ছে সৌদি আরবে নামাজের সময়ে দোকানপাট বন্ধ রাখার আইন। কর্তৃপক্ষকে আর্থিক ভাতা প্রদানের বিনিময়ে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো ২৪ ঘণ্টা খোলা রাখা যাবে এই মর্মে সৌদি আরব সরকার গত জুলাইয়ে একটি নির্দেশনা জারি করে।

দেশটির অধিকাংশ ব্যবসায়ীর মতে, সরকারের এ ঘোষণা নামাজের সময় দোকানপাট খোলা রাখার আইন চালু হওয়ার প্রচ্ছন্ন ইংগিত।

মঙ্গলবার আজান চলাকালীন রাজধানী রিয়াদের কয়েকটি হোটেল ও রেস্টুরেন্ট খোলা দেখা যায়, যা সৌদি আরবের জন্য একটি বিরল ঘটনা। আগে যেখানে আজানের সঙ্গে সঙ্গে কফি হাউজ, রেস্টুরেন্ট ও ব্যবসাকেন্দ্রগুলো দ্রুত বন্ধ করার জন্য পুলিশের তৎপরতা শুরু হতো। সেখানে আজানের পরও দেদারসে বেচাকেনা চলছে। বিষয়টিকে ক্রাউন প্রিন্স বিন সালমানের সংস্কার কার্যক্রমের অংশ হিসেবে দেখছে দেশটির নাগরিকরা। তারা এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন।

রাজধানী রিয়াদের অভিজাত একটি রেস্টুরেন্টে মাগরিবের নামাজ চলাকালীন কাস্টমারদের সেবা দিতে দেখা যায়। পাইকার এক ক্রেতার কাছে হ্যামবার্গার বিক্রির সময় রেস্টুরেন্টের ম্যানেজার মালিকের পক্ষ থেকে ক্রেতাকে একটি চিঠি দিয়ে তাকে নিজের রেস্তোরাঁ খুলে রাখার অনুরোধ করেন।

চিঠিতে লেখা ছিল, দোকান, রেস্টুরেন্ট ও বাণিজ্যিক কেন্দ্রসমূহকে ২৪ ঘণ্টা খোলা রাখার অনুমতি দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মন্ত্রিসভা, আর এই সিদ্ধান্তের মধ্যে নামাজের সময়ও অন্তর্ভুক্ত।

সৌদি সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, নতুন এ নির্দেশনার ফলে ২৪ ঘণ্টা খোলা রাখতে হলে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোকে প্রতিটি প্রতিষ্ঠান বাবদ ১ লাখ রিয়াল খরচ করতে হবে। যার পরিমাণ অন্তত ২৭ হাজার মার্কিন ডলার।

ইতিপূর্বে খোলামেলা পোশাক ও যৌ-ন উত্তেজক নাচের জন্য বিশ্বখ্যাত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জনপ্রিয় র‍্যাপ সঙ্গীত তারকা নিকি মিনাজকে সৌদি আরবে কনসার্টের অনুমতি দেয়া নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হয়। যদিও নিকি ব্যক্তিগত কারনে কনসার্ট থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার করে নেন।

সে সময় সৌদি সরকারের বিনোদন বিভাগের প্রধান, তুর্কি আল-শেখ জানুয়ারিতে একটি টুইট করে তাদের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য সম্পর্কে বলেন, আল্লাহ চাইলে, পরবর্তী ধাপের বিনোদনের মূল লক্ষ্য হবে নানা উৎসব, সার্কাস, মোবাইল থিম পার্ক, তরুণ-তরুণীদের বিনোদনের জন্য নানা কর্মসূচী নেয়া আর দেশীয় বিনোদন কোম্পানিগুলোকে সহায়তা করা।

Spread the love
  • 33
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    33
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।