অসহায় ও দরিদ্র শিল্পীদের জন্য ৪টি গরু কোরবানি দিলেন পরীমনি

0

বিনোদন ডেস্ক:

এবারও চলচ্চিত্রের সহশিল্পীদের সঙ্গে ঈদ করেছেন চিত্রনায়িকা পরীমনি। কোরবানি ঈদে তাদের জন্য ৪টি গরু কোরবানি দিয়েছেন তিনি। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশনের (বিএফডিসি) মধ্যে কোরবানি করা হয়। এফডিসি সূত্রে বিষয়টি জানা গেছে।

এদিকে গতকাল হাট থেকে গরু কিনে আনার ছবিও ফেসবুকে পোস্ট করেছেন পরীমনি।

কোরবানি প্রসঙ্গে জানতে চাইলে পরীমনি বলেন, আলহামদুলিল্লাহ এবারও আমার সহকর্মীদের নিয়ে কোরবানি ঈদ করতে পেরেছি। গতকাল এই গরুগুলো কেনা হয়েছে। ঈদের নামাজের পর এফডিসিতে গরুগুলো কোরবানি করা হয়।

পরী আরও বলেন, নিজেকে সবসময় এই চলচ্চিত্র পরিবারের একজন ভেবেই তৃপ্তি পাই। ঈদের দিন আমরা আনন্দ করব, আর যাদের সঙ্গে আমরা কাজ করি, তারা বাসায় মন খারাপ করে থাকবেন, তাই কি হয়! গত কয়েক বছর থেকে কোরবানির ঈদটা তাদের সঙ্গেই করি। এবারও আমার সহশিল্পী, মানে আমার পরিবারের মানুষজনের সঙ্গেই ঈদ করেছি।

বিএফডিসিতে, তথাকথিত এক্সট্রা, যাদের এখন বলা হয় সহশিল্পী, যারা দিনভিত্তিক চুক্তিতে কাজ করেন সিনেমায়, তাদের অনেকেই এখন বেকার। কারণ, বিএফডিসিতে কাজ কমে গেছে। তাদের জীবনে তাই ঈদের আনন্দ নেই।

প্রয়াত অভিনেতা সালমান শাহ ও রাজীব এই শিল্পীদের খোঁজখবর রাখতেন। তা দেখে পরীমনি চলচ্চিত্রে তার সহশিল্পীদের জন্য বিএফডিসিতে ঈদের দিন গরু কোরবানি দেন। আর সেই মাংস সহশিল্পী ও কলাকুশলীদের মধ্যে ভাগ করে দেয়া হয়।

এ বছর পরীমনি ছাড়াও চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির উদ্যোগে আরও ৫টি গরু কোরবানি দেয়া হয়েছে।

কোরবানি দেয়ার সময় কসাইয়ের ছুরি পেটে ঢুকে শিশুর মৃত্যু

কোরবানির গরু কাটার সময় অসাবধানতাবশত কসাইয়ের হাত থেকে ছুরি ছুটে গিয়ে এক শিশুর পেটে ঢুকে গেছে। এতে ওই শিশুর মৃ-ত্যু হয়েছে।

আজ সোমবার সকালে মাদারীপুর সদর উপজেলার দুধখালীতে এ ঘটনা ঘটে। মৃ-ত মৌমিতা আক্তার (৯) দুধখালী ইউনিয়নের উত্তর দুধখালী বড়কান্দি গ্রামের আনোয়ার বেপারীর মেয়ে। সে দুধখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

স্থানীয় সূত্র জানায়, সোমবার সকালে বাড়ির লোকজন উঠানে কোরবানির গরু কাটার তোড়জোর শুরু করে। এ সময় কয়েকজন শিশু দাঁড়িয়ে তা দেখছিল। একপর্যায়ে গরু নাড়াচাড়া করলে কসাইয়ের হাতে থাকা ছুরি ছুটে গিয়ে মৌমিতার পেটে ঢুকে যায়। সঙ্গে সঙ্গে মাটিয়ে পড়ে যায় মৌমিতা। পরে বাড়ির লোকজন তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে মৃ-ত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) শশাঙ্ক ঘোষ বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, পেটে ছুরি ঢুকে শিশুটির মৃ-ত্যু হয়েছে। হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃ-ত্যু হয়েছে।

Spread the love
  • 155
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    155
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।