অলৌকিকতা নয়, শুধু বুদ্ধির জোরেই রক্ষা পেল শিশুটি

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

এটি কোনো গল্প নয়, বাস্তব ঘটনা। ৬ তলা থেকে পড়েও অক্ষত রয়েছে ৩ বছরের এক ছেলেশিশু। ভবনের ৬ তলার শিশুটি একটি ঝুল বারান্দার দেয়াল ধরে ঝুলছিল। তা দেখে স্থানীয় লোকজন একটি বাসা থেকে কম্বল এনে নিচে ধরেন। এক পর্যায়ে শিশুটি কম্বলের ওপর এসে পড়ে। আর এভাবেই বুদ্ধিমত্তার কারনে বেঁচে যায় শিশুটি।

বুধবার ৩১ (জুলাই) চীনের দক্ষিণ–পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর চংকিংয়ে এ ঘটনা ঘটে। চীনের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন সিসিটিভির খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

একটি ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, বহুতল ভবনের বারান্দায় ঝুলে রয়েছে শিশুটি। সে দেয়াল বেয়ে ওপরে ওঠার চেষ্টা করছে। কিন্তু পা পিছলে একেবারে দেয়ালের কিনারে এসে পৌঁছেছে। ওই ভবনের নিচের লোকজন এটা দেখে উচ্চ স্বরে চিৎকার চেঁচামেচি জুড়ে দিলে সেখানে হাজির হন আশপাশের আরও লোকজন।

তবে বুদ্ধি করে কয়েকজন নিয়ে আসেন একটি কম্বল আর কোনাগুলো টেনে ধরেন শিশুটির নিরাপত্তার জন্য।

একটি আবাসিক প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপক ঝু ইয়ানহুই সিসিটিভিকে বলেন, ভবনের দিকে তাকাতেই দেখলাম, একটি শিশু বারান্দায় ঝুলছে। আমার প্রথম মাথায় আসে, কীভাবে শিশুকে ধরব। প্রথমে আমি মনে করেছিলাম, ৬ তলায় উঠে শিশুটির হাত ধরব। কিন্তু সেখানে ওঠার আগেই ছেলেটি নিচে পড়ে যেতে পারে, সেই আশঙ্কায় সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করলাম।

তিনি আরও বলেন, আমি অন্যদের সঙ্গে কম্বল ধরলাম। অন্যরা সবাই শিশুটির অবস্থানের দিকে নজর রাখছিলেন। শিশুটি যাতে কম্বলের ওপর এসে পড়ে, সে জন্য ঠিক স্থানে ধরলাম কম্বল। শুধু আমার ধারণার ফলে বেঁচে যায় শিশুটি।

এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, শিশুটি বারান্দায় খেলছিল। এমন সময় তার একটি খেলনা বারান্দার রেলিংয়ের বাইরে কার্নিশে পড়ে যায়। শিশুটি সেই খেলনাটি নেয়ার জন্য রেলিং টপকে কার্নিশের ওপর যায়। আর সেখান থেকে তার পা পিছলে যায়। তখন সে ওঠার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়।

এদিকে শিশুটিকে রক্ষার জন্য তার পরিবারের লোকজন স্থানীয়দের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।