ওই ঘটনার জন্য উইলিয়ামসনের কাছে ক্ষমা চাইলেন স্টোকস

0

স্পোর্টস ডেস্ক:

প্রায় দেড় মাসের ক্রিকেটরণ শেষে পর্দা নেমেছে বিশ্বকাপের। রোববার ক্রিকেটের মক্কাখ্যাত লর্ডসে শ্বাসরু-দ্ধকর ফাইনালে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে নিজেদের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো শিরোপা জিতেছে ইংল্যান্ড। নায়ক বেন স্টোকস। গোটা টুর্নামেন্টে দুর্দান্ত খেলেছেন তিনি। তবে ফাইনালের লড়াইয়ে তীব্র স্নায়ু চাপের মধ্যে তার পারফরম্যান্স ছিল নজরকাড়া।

শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে ২৪১/৮ রান করে নিউজিল্যান্ড। টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায় ইংল্যান্ড। সতীর্থরা যাওয়া আসা করলেও এক প্রান্ত আগলে রেখে বুক চিতিয়ে সামাল দেন স্টোকস। শেষ পর্যন্ত তার হার না মানা ৯৮ বলে ৮৪ রানের মহাকাব্যিক ইনিংসে ২৪১/১০ রান তোলে স্বাগতিকরা।

টাই হলে ম্যাচ গড়ায় সুপার ওভারে। সেখানেও ত্রাতা হয়ে এলেন স্টোকস। ৩ বল মোকাবেলায় করেন ৮ রান। তার নৈপুণ্যে ইংলিশদের দেয়া ১৫ রানের চ্যালেঞ্জ টপকাতে পারেনি কিউইরা।

যে কারণে ম্যান অব দ্য ফাইনালও নির্বাচিত হয়েছেন স্টোকস। তবু অহং-বোধ ফুটে ওঠেনি তার মাঝে। ম্যাচ সেরার পুরস্কার নিতে এসে প্রতি পক্ষ অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনের কাছে ক্ষমা চান তিনি।

ইংল্যান্ড ব্যাটিং ইনিংসের শেষ ওভারের ৪র্থ বলে স্ট্রাইকে ছিলেন স্টোকস। মিড উইকেটে বল ঠেলে দিয়ে দৌড়ে ২ রান নিতে যান তিনি। তাকে আউট করতে থ্রো করেন কিউই ফিল্ডার মার্টিন গাপটিল। তবে বল স্টোকসের ব্যাটে লেগে চলে যায় সীমানার বাইরে। ফলে ২ এর জায়গায় ৬ রান পান ইংলিশরা। তাতেই ম্যাচের মোড় ঘুরে যায়। ওই ঘটনার জন্যও নিউজিল্যান্ড কাপ্তানের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন এই ইংলিশ অলরাউন্ডার।

ম্যাচ শেষে স্টোকস বলেন, আমি ভাষা হারিয়ে ফেলেছি। গেল ৪ বছর ধরে আমরা কঠোর পরিশ্রম করেছি। অবশেষে এর ফল পেলাম। আমার মনে হয়, ক্রিকেট ইতিহাসে এমনটি আর কখনও হবে না। বাটলার ও আমি জানতাম, আমরা যদি শেষ পর্যন্ত থাকতে পারি, তা হলে নিউজিল্যান্ডকে চাপে রাখতে পারব।

উইলিয়ামসনের কাছে ক্ষমা চেয়ে তিনি বলেন, গাপটিলের থ্রোটা হঠাৎ আমার ব্যাটে লেগে যায়। এটা ছিল অ-নিচ্ছা প্রসূত। এ জন্য উইলিয়ামসনের কাছে আমি ক্ষমা চাচ্ছি। জফরা আর্চার পুরো বিশ্বকে নিজের প্রতিভা দেখিয়েছে। সতীর্থরা ও আমার পরিবারের সবাই যেভাবে সমর্থন জুগিয়েছে তা এককথায় অতুলনীয়।

Spread the love
  • 162
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    162
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।