সানিয়া মির্জাসহ ৪ পাকি ক্রিকেটার ভারতের সাথে ম্যাচের আগে সিসা বারে, মামলা দায়ের

0

স্পোর্টস ডেস্ক:

বিশ্বকাপের রাউন্ড রবিন লিগ পর্বের ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের কাছে বড় ব্যবধানে হেরে যায় পাকিস্থান। ভারত ও পাকিস্থানের মধ্যকার ওই ম্যাচ শেষে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে। যেখানে দেখা যায় ৪ পাকি ক্রিকেটার- ওয়াহাব রিয়াজ, ইমাম উল হক, ইমাদ ওয়াসিম, শোয়েব মালিক ও তার স্ত্রী সানিয়া মির্জা ম্যানচেস্টারের ক্যাফে লাউঞ্জের সিসা বারে অবকাশ যাপন করছে।

পাকিস্থানের সমর্থকরা তখন দাবি তোলে, ম্যাচের আগের রাতে সিসা বারে সময় কাটিয়ে ম্যাচের দিকে মনোযোগ দিতে পারেনি ক্রিকেটাররা। এ কারণেই ভারতের বিপক্ষে দলের এমন ভরাডুবি।

এদিকে এবার সেই ঘটনার জের ধরে ওই ৪ পাকিস্থানি ক্রিকেটার এবং সানিয়া মির্জার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। সিন্ধ হাইকোর্টে অভিযোগটি দায়ের করেছেন দেশটির এক আইনজীবী।

আবদুল জলিল মারওয়াত নামের ওই আইনজীবী দাবি করেন, সিসা টানার কারণেই মাঠে খারাপ পারফর্ম্যান্স করেছে পাকিস্থান দল। সেইসঙ্গে এমন কাজের জন্য দায়ী করে পাকিস্থান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি), আইসিসির বিরুদ্ধেও অভিযোগ করা হয়েছে।

অভিযোগপত্রে জানানো হয়, ‘গুরুত্বপূর্ণ ওই ম্যাচে শোয়েব মালিক করেন ০ রান, ইমাম উল হক করেন ৭ রান এবং ওয়াহাব রিয়াজ মাত্র ১টি উইকেট পান। এ ছাড়াও শিশু নিয়ে সিসা লাউঞ্জে যাওয়া রীতিমত গর্হিত অপরাধ।‘

শুধু তাই নয় মারওয়াত কোর্টের কাছে আপিল করেছেন, পিসিবির কাছে যেন জানতে চাওয়া হয়, কেন তারা ওই ৪ ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে কোনো প্রকার ব্যবস্থা নেয়নি।

এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সিসা বারের খবরটি চাউর হতেই সমর্থকরা ধুয়ে দিচ্ছেন ক্রিকেটারসহ শোয়েব মালিকের ভারতীয় স্ত্রী সানিয়া মির্জাকেও। তাদের অনেকেরই দাবি, সানিয়া ভারতীয় নাগরিক হওয়ায় ভারতকে জেতানোর জন্য পাকি ক্রিকেটারদেরকে ছলনা করে সিসা বারে নিয়ে গেছেন।

তাদের মধ্যে কোনো ধরনের সমঝোতাও হয়ে থাকতে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন কেউ কেউ। সানিয়া নিজ দেশের এজেন্ডা নিয়ে পাকিস্থানের নির্ভরযোগ্য খেলোয়াড়দের মনোযোগ নষ্ট করতেই এই কাজটি করেছেন বলে দাবি করছেন পাকি সমর্থকরা।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।