জমজমের পানি বহনে নিষে-ধাজ্ঞা প্রত্যাহার করল এয়ার ইন্ডিয়া

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ভারতীয় বিমান পরিবহন সংস্থা এয়ার ইন্ডিয়া কর্তৃপক্ষ তাদের উড়োজাহাজে করে জমজমের পানি বহনের নিষে-ধাজ্ঞা অবশেষে প্রত্যাহার করে নিয়েছে। ফলে ভারতীয় হজ যাত্রীদের দুশ্চিন্তা কমেছে।

মঙ্গলবার টুইট বার্তায় এয়ার ইন্ডিয়া কর্তৃপক্ষ বলে, ‘এআই নাইন সিক্স সিক্স ও এআই নাইন সিক্স ফোর উড়োজাহাজে দুটিতে জমজমের পানির ক্যান বহনে নিষে-ধাজ্ঞা দেয়া হয়। কিন্তু সে নিষে-ধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছে। হাজীরা জমজমের পানি উড়োজাহাজ দুটিতে বহন করতে পারবেন। সাময়িক অসুবিধার জন্য আমরা ক্ষমাপ্রার্থী।’

গত ৪ জুলাই এয়ার ইন্ডিয়ার জেদ্দা কার্যালয় থেকে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘উড়োজাহাজ পরিবর্তন ও আসন সীমিত হওয়ার কারণে জমজমের পানির ক্যান ফ্লাইটে বহন করা যাবে না।’

জেদ্দা – হায়দ্রাবাদ – মুম্বাই ও জেদ্দা – কোচি ফ্লাইট দুটিতে আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত জমজমের পানি বহনে নিষে-ধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছিল।

জমজমের পানি মুসলমান ধর্মাবলম্বীদের কাছে অতি পবিত্র পানি। প্রত্যেক হজযাত্রীই তার আত্মীয়-স্বজনসহ নিজের পরিবারের জন্য মক্কা থেকে জমজমের পানি নিয়ে আসে।

হঠাৎ এ নিষে-ধাজ্ঞায় অনেক হজ্জযাত্রীই চিন্তায় পড়ে গিয়েছিল। অনেক হজযাত্রী নিষে-ধাজ্ঞা প্রত্যাহারে লোকসভায় কংগ্রেস সদস্য আমিন প্যাটেলের হস্তক্ষেপও কামনা করে। আমিন প্যাটেল বলেছিলেন, ‘জমজমের পানি পবিত্র। এ পানির ধর্মীয় তাৎপর্য রয়েছে। জমজমের পানি অসুস্থতা নিরসনে উপকারী বলে মুসলমানরা বিশ্বাস করে। তাই হাজিদের অবশ্যই জমজমের পানি বহনের অনুমতি দিতে হবে।’

বেসামরিক বিমান চলাচল মন্ত্রণালয় ও সংখ্যালঘু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কাছে জমজমের পানি বহনে নিষে-ধাজ্ঞা প্রত্যাহারের জন্য এয়ার ইন্ডিয়া কর্তৃপক্ষকে অনুরোধের জন্য চিঠিও পাঠান প্যাটেল।

ভারতের হজ কমিটির নির্বাহী পরিচালক এম এ খান নিষে-ধাজ্ঞার সমালোচনা করে বলেন, ‘হজ থেকে ফিরতি পথে প্রত্যেক হজযাত্রীকে ৫ লিটার জমজমের পানি বহনের অনুমতি দিতে এয়ার ইন্ডিয়া কর্তৃপক্ষ বাধ্য। কারণ এ বিষয়ে আমাদের সমঝোতা স্মারক হয়েছে।’

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ নিষে-ধাজ্ঞার ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়।

Spread the love
  • 106
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    106
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।