টিপস: এই বর্ষায় খাওয়াদাওয়ায় সতর্ক থাকুন

0

লাইফ স্টাইল ডেস্ক:

বর্ষাকাল বাঙালির মনে রোমান্টিকতার জন্ম দিলেও চারপাশে তাকালে দেখা যাবে অসুখবিসুখের ছড়াছড়ি। ভাইরাস, ব্যাক্টেরিয়া কিংবা বিভিন্ন জীবাণুঘটিত পানিবাহিত, ঠাণ্ডাজনিত রোগগুলো বেশি হচ্ছে। ঠাণ্ডাজ্বরের পাশাপাশি পেটের কঠিন অসুখ যেমন- ডায়রিয়া, কলেরার প্রাদুর্ভাব দেখা যায়। এজন্য অবশ্য আমাদের গাফিলতিটাই দায়ী। আমাদের সচেতনতার অভাবেই অসুখ হচ্ছে, ভুগছিও বেশি।

এই অবস্থায় সবচেয়ে বেশি সচেতন হতে হবে আমাদের খাওয়াদাওয়ায়। এই বর্ষার মৌসুমে তেমন কিছু সচেতনতার কথাই জানাচ্ছি আজকে-

♣ সবার প্রথমে রাস্তার পাশে বিক্রি হওয়া খাবার খাওয়া বাদ দিন। কেননা এতে ধুলো ময়লা বেশি পড়ে। আর এই খাবার খেলে পেটের অসুখ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

♣ অনেক সময় খাবার ঠিকমতো রান্না না করেই খাওয়া হয়। এতে হজমে সমস্যা দেখা দেয়। কাঁচা ফল বা সবজি যেমন শসা, টমোটো, আপেল খেলে তা অবশ্যই ধুয়ে খাবেন। অন্য সময়ের চেয়ে বর্ষার পানিতে ময়লা আরও বেশি থাকে। তাই বাসায় এনে পরিষ্কার পানিতে ভালোভাবে ধুয়ে তারপর খাবেন।

♣ পানির বিশুদ্ধতা নিশ্চিত না করে কখনই তা পান করা উচিত নয়। এই ঋতুতে এ ব্যাপারে আরও সচেতন হতে হবে। তাই পানি পান করার আগে তা ভালোভাবে ফুটিয়ে জীবাণুমুক্ত করে খাবেন।

♣ পেটের সমস্যার একটা বড় কারণ থাকে, হাত না ধুয়ে খাওয়া। তাই খাবার আগে ভালোভাবে হাত পরিষ্কার করে নিন। আর ভ্রমণের সময় যদি হাত ধোয়ার অপশন না থাকে, তবে সাথে একটা মিনি সাইজের হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখুন।

♣ খাবার রান্নায় আদা ব্যবহার করুন। এছাড়া এই সিজনে আদা চা খাবেন। সম্ভব হলে খাবার পরে একটু কাঁচা আদা চিবিয়ে খাবেন। কারণ, আদা আপনার হজম শক্তিকে বাড়িয়ে দিবে।

♣ বাসি বা গন্ধ ওঠা খাবার খাবেননা একদমই। এতে ডায়রিয়া বা অন্যান্য পেটের সমস্যা দেখা দিতে পারে। আর পেটের সমস্যা দেখা দিলে ওষুধ খাবার পাশাপাশি অন্যান্য খাবার খেতে হবে। সাধারণ স্যালাইন, ডাব, চিড়া ইত্যাদি খাবেন এ সময়।

♣ খাবার ভালোভাবে রান্না করুন। যে খাবার রান্না করবেন অবশ্যই ভালো করে ধুয়ে নেবেন। আধা সিদ্ধ সবজি অথবা ভাত খাবেন না। অনেক সময় এমন খাবার খেলে ডায়রিয়া হয়। তাই রান্না করার সময় খাবারটি ভালোভাবে সিদ্ধ করুন।

♣ পানি ভালো করে ফুটান। আপনি যে পানি পান করবেন, তা ভালোভাবে ফুটিয়ে নিন। ফোটানো হলে নামানোর আগে ফিটকিরি ব্যবহার করতে পারেন। তাহলে পানিতে জমে থাকা আয়রন অথবা ময়লা নিচে পড়ে যাবে। ভালো মানের ফিল্টারও ব্যবহার করতে পারেন ফোটানোর পরিবর্তে।

♣ খাবার ভালোভাবে চিবিয়ে খান। যা খাবার খাবেন, ভালোভাবে চিবিয়ে খান। আর কিছু শক্ত খাবার আছে, যা চিবিয়ে না খেলে পেট ব্যথা করতে পারে। যেমন: কাঠ বাদাম, কাজু বাদাম, খেজুর, গরম চিকেন ফ্রাই ইত্যাদি। এগুলা ভালোভাবে চিবিয়ে খান।

♣ অ্যাপেল সিডার ভিনেগার রাখুন বাসায়। পেটের অসুখ হলে অ্যাপেল সিডার ভিনেগার ব্যবহার করুন। হালকা গরম পানিতে অ্যাপেল সিডার ভিনেগার মিশিয়ে খান।

♣ ভাতের চাল ভালো করে সিদ্ধ করুন। পেটের অসুখ থেকে বাঁচতে হলে অবশ্যই ভাতের চাল ভালোভাবে সিদ্ধ করুন। আপনি চাইলে ভাতের চালের মধ্যে ১ চিমটি দারচিনি গুঁড়ো অথবা অল্প করে মধুও দিতে পারেন।

♣ খাবার অবশ্যই সবসময় ঢেকে রাখবেন। চারপাশের নোংরা পরিবেশে সংক্রমণের ভয় বেশি। তাই সাবধান থাকার বিকল্প নেই।

লেখক: শাহরিনা হক

Spread the love
  • 13
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    13
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।