সৌদি হালাল নাইটক্লাব উদ্বোধনের দিনই হোঁচট খেল!

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

উদ্বোধনের দিনই মুখ থুবড়ে পড়ল সৌদি আরবের ‘হালাল নাইটক্লাব’ এর জমজমাট ব্যবসা। আইনগত প্রক্রিয়া অনুসরণ না করায় বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির কর্তৃপক্ষ।

দুবাইভিত্তিক সংবাদমাধ্যম এরাবিয়ান বিজনেস এ খবর জানিয়ে বলছে, নাইটক্লাব ব্র্যান্ড ‘হোয়াইট’ জেদ্দায় তাদের একটি শাখা চালু করতে চেয়েছিল। এজন্য সব প্রস্তুতিও সম্পন্ন হয়। শেষ পর্যন্ত উদ্বোধনের দিন মার্কিন গায়ক নে-ইয়ো আসার আগেই এটি বন্ধ ঘোষণা করে সৌদি কর্তৃপক্ষ।

হালাল নাইটক্লাব চালু প্রসঙ্গে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিল, দুবাই ও বৈরুতের বিখ্যাত ব্র্যান্ড নাইটক্লাব হোয়াইটের কার্যক্রম শুরু হতে যাচ্ছে সৌদি আরবের জেদ্দায়। এতে বিলাসবহুল ক্যাফে এবং লাউঞ্জ থাকবে। এই হালাল নাইটক্লাবে ওয়াটারফ্রন্ট থাকবে, এর সঙ্গে থাকবে বিশ্বের খ্যাতনামা মিউজিক গ্রুপের পরিবেশনা। ইলেক্ট্রনিক ডান্স মিউজিক, কমার্সিয়াল মিউজিক, আরএনবি এবং হিপহপ মিউজিক উপভোগ করা যাবে এখানে।

এই নাইটক্লাবের লাউঞ্জের একটি অংশে থাকবে ড্যান্স ফ্লোর। নারী পুরুষ সবার জন্যে এই ড্যান্স ফ্লোর উন্মুক্ত থাকবে। হোয়াইটের সব ধরনের সুযোগ সুবিধাই এখানে পাওয়া যাবে। তবে এই নাইটক্লাবে মদ পাওয়া যাবে না। কারণ সৌদিতে মদ কেনাবেচা অবৈধ। কেউ যদি মদ কেনাবেচা করে তবে তাকে শাস্তি পেতে হয়।

হালাল নাইটক্লাব চালু হবে এমন খবর শোনার পর থেকে বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক আলোচনা শুরু হয়। তখন অনেকে হাস্যরসে মেতে ওঠেন আর কেউবা ফেটে পড়েন ক্ষোভে। এ সময় নাইটক্লাবের বিরোধীরা বিভিন্নভাবে তাদের হতাশা প্রকাশ করেন। ফেসবুকে হ্যাশট্যাগ দিয়ে যা লিখেন তার অর্থ হলো- জেদ্দা বিচে আমি নিষিদ্ধ কার্যক্রম সমর্থন করি না।

এই ‘হালাল নাইটক্লাব’ বিষয়টি নিয়ে খোদ সৌদি আরবেও শুরু হয়েছে তীব্র সমালোচনা। যদিও প্রকাশ্যে কেউই সমালোচনা করছেন না, তবে সৌদি রক্ষণশীল পরিবারগুলো এ নিয়ে অসন্তুষ্ট। কট্টর ধর্মরাষ্ট্র হিসেবে পরিচিত সৌদি আরবের ঐতিহ্য ধ্বংস করতে ইউরোপ আমেরিকার মত ‘অপ-সংস্কৃতির চর্চা’ চালু হচ্ছে বলেও দাবি করছেন কেউ কেউ। রাজ পরিবারের বিরাগভাজন হওয়ার ভয়ে ধর্মীয় নেতারা চুপ করে আছেন এ বিষয়ে।

Spread the love
  • 95
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    95
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।