পশ্চিমবঙ্গকে ‘মিনি পাকিস্থান’ বানিয়ে ফেলেছেন মমতা‌: জেডিইউ

0

কলকাতা প্রতিনিধি:

পশ্চিমবঙ্গকে ‘মিনি পাকিস্থান’ বানিয়ে ফেলেছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা ব্যানার্জি- এমনই অভিযোগ করেছেন বিহার রাজ্যের ক্ষমতাসীন দল জেডিইউ’র মুখপাত্র অজয় অলোক। তিনি বলেছেন, মমতার নেতৃত্বে আজ পশ্চিমবঙ্গ ‘মিনি পাকিস্থান’-এ পরিণত হয়েছে। আর এই পরিস্থিতি আরো খারাপ হওয়ার আগে মোকাবেলা করা উচিত তার। খবর ওয়ান ইন্ডিয়ার।

বৃহস্পতিবার কলকাতার কয়েকটি সংবাদমাধ্যমে এ কথা বলেন অজয় অলোক। জানা যায়, জেডিইউ’র এনডিএ জোট ছাড়ার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। মমতা বলেছিলেন, আমি জেডিইউ’কে ধন্যবাদ জানাই যে; দলটি এনডিএ জোট ছেড়েছে। কিন্তু মমতার প্রশংসায় খুশি না হয়ে বরং পাল্টা জবাবে নিন্দা ছুঁড়ে দিল দলটি।

অজয় অলোক অভিযোগ করেন; পশ্চিমবঙ্গ থেকে বিহারিদের বিতাড়িত করা হচ্ছে। মমতার চোখের সামনেই রোহিঙ্গারা এই কাজ করছে। এখানে কোনও বাঙালি এই কাজ করছে না। এসময় তিনি পশ্চিমবঙ্গ থেকে পাটনা যাওয়ার পথে বিহারিদের মারধরের তীব্র নিন্দা জানান। এ ঘটনার জের ধরে দলটি মমতার অভিনন্দনেও মোটেও খুশি নয়, বরং তারা সুযোগ বুঝে মমতাকে খোঁচা দিয়েছে।

আমাকে সত্যিটা বলতে দিন: প্রিয়াঙ্কা

মা সোনিয়া গান্ধীর পাশে দাঁড়িয়ে কংগ্রেস কর্মীদের সমালোচনা করলেন ভারতের প্রাচীনতম এই দলটির সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। মায়ের নির্বাচনী কেন্দ্র উত্তরপ্রদেশের রায়বরেলির সভা থেকে তিনি বলেন, তাকে বলতে বলা হয়েছে বলেই তিনি বলছেন। তার দাবি একাংশের কংগ্রেস কর্মীরা দলের জয় নিশ্চিত করতে যা করা দরকার তা করেননি। আর সেই তালিকায় কারা আছেন সেটা খুঁজে বের করার কাজ করবেন বলেও জানান প্রিয়াঙ্কা।

এবারের লোকসভা নির্বাচনের আগে তাকে দলের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বে এনেছে কংগ্রেস। পূর্ব উত্তরপ্রদেশের দায়িত্বও দেওয়া হয়েছে তাকে। ভোটে জয় পেয়েছেন সোনিয়া। আর তাই বুধবার তিনি নিজের সংসদীয় এলাকায় যান। সঙ্গে ছিলেন প্রিয়াঙ্কাও।

সভা থেকে তিনি বলেন, আমি ভাষণ দিতে চাইনি। কিন্তু আমাকে বলতে বলা হয়েছে। তাই আমাকে সত্যিটা বলার সুযোগ দিন। আসল সত্যিটা হল রায়বরেলিতে আমরা জিতেছি সোনিয়া গান্ধী এবং এলাকার মানুষের জন্য। কারা মন থেকে দলের হয়ে কাজ করেছেন সেটা সকলেই জানেন।

Spread the love
  • 91
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    91
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।