ফেসবুক-চিটিং: গাজীপুরে ২৫ লাখ জাল ডলারসহ বিদেশি আটক

0

গাজীপুর প্রতিনিধি:

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মাস্টারবাড়ি এলাকা থেকে ২০ কোটি টাকা সমমূল্যের ২৫ লাখ জাল আমেরিকান ডলারসহ এক লাইবেরিয়ার নাগরিককে আটক করেছে র‌্যাব-১ সদস্যরা। মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে ডলারসহ তাকে আটক করা হয়। আটককৃতের নাম মোস্তফা আলী ওরফে জজ মাশাও (৪০)।

গাজীপুরের পোড়াবাড়ি র‌্যাব-১ এর কোম্পানি কমান্ডার আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, প্রায় ১ মাস আগে স্থানীয় এক ব্যাংকারের সঙ্গে মোস্তফার ফেসবুকে পরিচয় হয়। তাদের চুক্তি মোতাবেক ওই ব্যাংকারকে আমেরিকান ২৫ লাখ ডলার সরবরাহের জন্য লাইবেরিয়ান নাগরিক মাশাও মঙ্গলবার গাজীপুরের মাস্টারবাড়ি এলাকায় আসেন।

পরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মাস্টারবাড়ি এলাকায় গিয়ে র‌্যাব সদস্যরা অভিযান চালায় এবং মাশাওকে আটক করে। এসময় তার কাছ থেকে ২০ কোটি টাকা সমমূল্যের আমেরিকান ২৫ লাখ জাল ডলার, জাল ডলার তৈরির সামগ্রী জব্দ করা হয়।

ওই র‌্যাব কর্মকর্তা আরও জানান, এক সপ্তাহ আগে মাশাও ওই ব্যাংকারকে জানান, বিমানবন্দরে মাশাওয়ের আনা ডলারের ভল্ট আটক করা হয়েছে। তা ছাড়াতে ৭ লাখ টাকা প্রয়োজন। পরে ডাচ বাংলা একাউন্টের মাধ্যমে ওই টাকা পাঠালে মাশাও ওই টাকা তুলে নেয়। পরে ডলারের ভল্ট দিয়ে টাকা নেয়ার জন্য মাস্টারবাড়ি এলাকায় গিয়েছিল মাশাও।

গরীবের চাল চুরি করে স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি কারাগা

পটুয়াখালীতে দুস্থদের জন্য বরাদ্দকৃত (ভিজিএফ) চাল চুরির অভিযোগে জৈনকাঠি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি জসিম উদ্দিন হাওলাদারকে (৪৩) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার দুপুরে স্থানীয়দের দেয়া সংবাদের ভিত্তিতে তাকে আটক করা হয়। এ ঘটনায় জৈনকাঠি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ফিরোজ আলম বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। গ্রেপ্তারের পর আদালতের মাধ্যমে পুলিশ তাকে কারাগারে পাঠিয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত জসিম ওই ইউনিয়ন পরিষদের প্রাক্তন চেয়ারম্যান মৃত আবদুল মান্নান হাওলাদারের পুত্র।

পটুয়াখালী সদর থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান জানান, আসন্ন ঈদুল ফিতরে দুস্থদের মাঝে বরাদ্ধকৃত চাল বিতরণের জন্য জৈনকাঠি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একটি কক্ষে মজুদ করা হয়। সোমবার রাতে জসিম উদ্দিন বিদ্যালয়ের নৈশ প্রহরী ইউছুফ হাওলাদারের কাছ থেকে চাবি নিয়ে ১৪ বস্তা চাল অন্য কক্ষে সরিয়ে রেখে তালাবদ্ধ করে রেখে চাবিটি পুনরায় তাকে দিয়ে যায়।

মঙ্গলবার চেয়ারম্যান মো. ফিরোজ আলমসহ ইউপি সদস্যরা চাল বিতরণ করতে গেলে চাল পরিমাণে কম দেখতে পায়। নৈশ প্রহরী ইউছুফের কাছে এ বিষয়ে জানতে চান চেয়ারম্যান। এ সময় চাপের মুখে ইউছুফ সভাপতি কর্তৃক চাল চুরির কথা স্বীকার করেন।

পরে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ফিরোজ আলম সদর থানা পুলিশ এবং সংশ্লিষ্ট উপজেলা প্রশাসনকে জানায়। পরে পুলিশ গিয়ে সভাপতি জসিমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে আনে। জসিম চাল সরানোর কথা নিজ মুখে স্বীকার করলে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

Spread the love
  • 48
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    48
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।