টেলিভিশন বিস্ফোরিত হয়ে স্বামীর পর মারা গেলেন স্ত্রীও

0

সময় এখন ডেস্ক:

রাজধানীর পশ্চিম আগারগাঁওয়ে একটি বাসায় হঠাৎ করে টেলিভিশন সেট বিস্ফোরিত হয়। তাতে গুরুতরভাবে অগ্নিদগ্ধ হন স্বামী ও স্ত্রী। তাদেরকে হাসপাতালে নেয়া হয়। সেই বিস্ফোরণের দগ্ধের ঘটনায় স্ত্রী সালমা আক্তারও (২৬) মারা গেছেন।

শুক্রবার রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীণ থেকে তার মৃত্যু হয়। সালমার শরীরের ৯৫ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল।

জানা যায়, গত শনিবার দিনগত রাত ২টার দিকে বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান সালমার স্বামী মোক্তার হোসেন। তার শরীরের ৯৭ শতাংশ দগ্ধ ছিল। এ বিষয়টি নিশ্চিত করেন বার্ন ইউনিটের আবাসিক চিকিৎসক ডা. পার্থ শংকর পাল।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার আগারগাঁওয়ের বিএনপি বাজার এলাকায় এক বাসায় টেলিভিশন সেট বিস্ফোরণে মুক্তার হোসেন (৩৮) ও তার স্ত্রী সালমা মারাত্মক দগ্ধ হন। পরে দুজনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়।

স্থানীয়রা জানান, পশ্চিম আগারগাঁও বিএনপি বাজার এলাকার ২ নম্বর রোডের একটি বাসার নিচতলায় ভাড়া থাকতেন এই পরিবারটি।

এলাকায় তার ফার্মেসির দোকান আছে। বিকালে তিনি বাসায় ঘুমিয়ে ছিলেন ও স্ত্রী সালমা রান্নাঘরে ছিলেন। হঠাৎ ঘরের মধ্যে টিভি বিস্ফোরণের কারনে আগুন ছড়িয়ে পড়লে তারা দুজনেই দগ্ধ হন। তাদের একমাত্র ছেলে শাফিন এ সময় বাসার বাইরে ছিল। দগ্ধ দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের রাখা হয় নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে।

মহাখালীতে গার্মেন্টসে আগুন

রাজধানীর মহাখালীতে একটি গার্মেন্টসে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

শুক্রবার দিবাগত রাত সোয়া ১২টার দিকে মহাখালীর তিতুমীর কলেজের বিপরীত পাশে ছয়তলা একটি ভবনের তৃতীয়তলার মিনি গার্মেন্টসের সুইং সেকশনে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

ফায়ার সার্ভিসের ডিউটি অফিসার কামরুল হাসান সাংবাদিকদের জানান, ফায়ার সার্ভিসের ৩টি ইউনিট রাত ১টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুন কীভাবে লেগেছে সেটা এখনো জানা যায়নি। এ সময় গার্মেন্টসটিতে কেউ ছিল না বলে তিনি জানান।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।