খাবার কোন তেলে ভাজা- রেস্তোরাঁর বোর্ডে টাঙানো থাকবে

0

চট্টগ্রাম ব্যুরো:

কোনো হোটেল রেস্তোরাঁয় ঢুকলেই দেখা যায় খাবারের রকমারি তালিকা, বাহারি রেস্টুরেন্টের মেন্যুতে মূল্য তালিকাসহ বিভিন্ন খাবারের রকমারি বর্ণনা। কোনো কোনো হোটেল রেস্তোরাঁয় খাওয়ার টেবিলেই ছাপাানো বিভিন্ন ধরনের মেন্যু কার্ড সেঁটে দেয়া থাকে, এখন থেকে ব্যতিক্রমী এক নোটিশ বোর্ড দেখার জন্য তৈরি হতে আহ্বান জানিয়েছেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন।

হোটেল রেস্তোরাঁয় নির্দেশিত এই নোটিশ বোর্ডে লেখা থাকবে প্রস্তুতকৃত খাবার সমূহ কোনটি কোন তেলে ভাজা হয়েছে। কোন আইটেম কোন তেলে ভাজা, খাঁটি সরিষার তেল নাকি সয়াবিন বা ডালডা, পাম ওয়েল অথবা বাসী আগের দিনের পোড়া তেল। যা দিয়েই ভাজা হোক না কেন ওই তেলের নামটি এই বোর্ডে অবশ্যই লিখতে হবে প্রতিদিন।

পবিত্র রমজান মাসে ভেজাল বিরোধী অভিযান পরিচালনা করতে গিয়ে সরজমিনে বিভিন্ন ধরনের হোটেল রেস্তোরাঁয় অভিযান করে তেমনটা সুফল হবে না বা হচ্ছে না ভেবে জনসচেতনতা বৃদ্ধির জন্য এই অভিনব উদ্যোগটি গ্রহণ করেছে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের দুই নির্বাহী ম্যাজিসট্রেট তাহমিলুর রহমান ও মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম।

চট্টগ্রাম নগর জুড়ে ভেজাল বিরোধী অভিযান পরিচালনায় ইফতারের পণ্য ভাজতে ভেজাল ডালডা ব্যবহার করা, সেমাই ,ঘি ইত্যাদি খাদ্য তৈরিতে বিভিন্ন ধরনের তেলের ব্যবহার দেখে ক্রেতাদের সচেতন করতে এই উদ্যোগ। নগরবাসী কী খাচ্ছে, কতটুকু স্বাস্থ্যসম্মত ভাজা পোড়া হচ্ছে তা যাতে তারা বুঝতে পারে তাই হোটেল রেস্তোরাঁর মালিকদের এই নোটিশ বোর্ড ঝুলানোর জন্য কঠোর নির্দেশ দিয়েছেন। এই নির্দেশনা শুধু এক দিনের জন্য নয়, হোটেল-রেস্টুরেন্ট কর্তৃপক্ষকে পুরো রমজান মাসজুড়ে তৈরিকৃত ইফতার সামগ্রীতে ব্যবহৃত তেলের নাম লিখে ঝুলিয়ে দিতেও বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম বলেন, রমজান মাসে খাবারে ভেজালরোধে আমরা ধারাবাহিকভাবে অভিযান পরিচালনা করছি। এখন থেকে আমরা রেস্তোরাঁগুলোর সামনে আঠা দিয়ে লাগিয়ে দিব তারা কোন তেল দিয়ে খাবার তৈরি করছে। এরপর তা দেখে ক্রেতারা তাদের পছন্দের ইফতার সামগ্রী কিনতে পারবেন।

Spread the love
  • 270
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    270
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।