ম্যাডাম অসুস্থ, ইলিশ মুখে দিতে পারেননি- কান্নাজড়িত কণ্ঠে ফখরুল

0

বিশেষ প্রতিবেদন:

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়াকে দেখতে গিয়েছিলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। দেখে আসার পর আবেগে হু হু করে কেঁদে উঠে তিনি বলেন, খালেদা জিয়া ‘অত্যন্ত অসুস্থ’, ইলিশ নিয়ে গিয়েছিলাম, মুখেই তুলতে পারেননি।

গতকাল রবিবার (১৪ মার্চ) বিকালে চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়াকে দেখে এসে সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি। এ সময় মির্জা ফখরুলের নেতৃত্বে তার সঙ্গে ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও নজরুল ইসলাম খান।

মির্জা ফখরুল বলেন, ম্যাডাম বেশ অসুস্থ, অত্যন্ত অসুস্থ। উনি খেতে পারছেন না এখনো। এখনো তিনি পা বেন্ড করতে পারেন না। তার বাম হাত সেই আগের মতোই রয়ে গেছে। অর্থাৎ বাম হাতটায় কাজ করতে পারছেন না। এই অবস্থার মধ্যে তিনি আছেন। আমি ইলিশ নিয়ে গিয়েছিলাম ওনাকে দেখতে। কিন্তু অসুস্থতার দরুণ একটুও খেতে পারেননি।

তিনি বলেন, এক কথায় ম্যাডাম (খালেদা জিয়া) যথেষ্ট অসুস্থ আছেন। আগের চেয়ে খুব বেশি ইম্প্রুভ করেছে বলে আমাদের কাছে মনে হয়নি।

ফখরুল বলেন, আমরা বারবার যেটা বলেছিলাম, তার স্পেশালাইজড ট্রিটমেন্ট দরকার। সে ট্রিটমেন্ট এখনো শুরু হয়েছে বলে আমাদের কাছে মনে হয়নি।

পহেলা বৈশাখে খালেদা জিয়া দেশবাসীকে নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন উল্লেখ করে ফখরুল বলেন, ম্যাডাম দেশবাসীকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। তিনি গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের জন্য বলেছেন, দেশবাসী যেন সচেতন হয় এবং এর জন্য কাজ করে।

আবেদন করলে খালেদার মুক্তি বিষয়ে বিবেচনা

সুনির্দিষ্ট কারণ দেখিয়ে আবেদন করা হলে খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তির বিষয়ে চিন্তা করবে সরকার। এ কথা বলেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান কামাল।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বিএনপির আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন তার শারীরিক অবস্থা ভালো। তারপরও বিএনপি যদি তার চিকিৎসার জন্য প্যারোলে মুক্তির আবেদন করে, সেটি যদি যৌক্তিক মনে হয় তবে বিষয়টি সরকার ভেবে দেখবে।

Spread the love
  • 2.9K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2.9K
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।