নুসরাতকে নিয়ে রাবি ছাত্রের ‘বিকৃত’ মন্তব্য, তোলপাড় অনলাইন!

0

সময় এখন ডেস্ক:

মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে নিয়ে যখন শোকে মূহ্যমান সারাদেশ, ঠিক তখনই মামুন বিল্লাহ নামের রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া এক বিকৃত মস্তিষ্কধারী ছাত্রের বিকৃত মন্তব্যে ফুঁসে উঠেছেন নেটিজেনরা। তীব্র সমালোচনা শুরু হয়েছে চারদিকে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম রীতিমতো তোলপাড়।

তোপের মুখে ওই ছাত্র তার ফেইসবুক আইডি ডিঅ্যাক্টিভ করে রেখেছেন। অনেকেই ওই ছাত্রকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কারের দাবি জানিয়ে পোস্ট দিচ্ছেন।

জানা গেছে, একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালে সেই মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাতকে নিয়ে নিউজ করা হলে সেখানে রাবি ছাত্র মামুন বিল্লাহ কমেন্ট করেন- ‘মেয়েটা কিন্ত জোস ছিল, মালটা ধর্ষণ করার মতোই ছিল’

রাবি ছাত্রের এমন বিকৃত মন্তব্যে অনেকেই তাকে ভবিষ্যৎ ধর্ষক হিসেবে চিহ্নিত করে পোস্ট দিয়েছেন। এমন মানসিকতার জন্য তাকে রীতিমতো তুলোধনা করা হচ্ছে। আফরোজা সিদ্দিক নামে এক ছাত্রী তার ফেসবুকে লিখেছেন, এমন মানসিকতার একটি ছেলে কীভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করে? তাকে অবিলম্বে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কারের দাবি জানান তিনি।

রহমান মোস্তাফিজ নামের এক ছাত্র মামুন বিল্লাহকে ভবিষ্যৎ ধর্ষক উল্লেখ করে লিখেন, আরেকটি অঘটন ঘটার আগেই সম্ভাব্য এই ধর্ষককে শাস্তি দেয়া হোক! বিনয় মজুমদার লিখেছেন, মেনে নিতে কষ্ট হয় এই ছেলেটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করে! ইয়াসমিন জোয়ার্দ্দার লিখেছেন, লজ্জা লাগছে আমি এই বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করি। পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করে এমন নিচু মনমানসিকতা কী করে হয়!

এমন নানা কমেন্টে রাবি ছাত্র মামুনকে তুলোধনা করা হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে।

নুসরাত হত্যা মামলা: ভালুকা থেকে আটক শিবির ক্যাডার নূরুদ্দিন

ফেনীর মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যা মামলার অন্যতম আসামি ও অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলার দোসর শিবির ক্যাডার নূরুদ্দিনকে ময়মনসিংহের ভালুকা থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। আজ শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে ভালুকার সিডস্টোর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে ময়মনসিংহ পিবিআই।

ভালুকা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ তালুকদার বলেন, নূরুদ্দিনকে গ্রেফতার করে পিবিআই কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, অধ্যক্ষ সিরাজের মুক্তির দাবি করা ওই মিছিলের একটি ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে আসামি নুরুদ্দিনকে বক্তব্যও দিতে দেখা যায়।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।