রাস্তায় নারী পথচারীদের শরীরের আপত্তিকর ভিডিও করায় যুবককে গণধোলাই (ভিডিও)

0

সময় এখন ডেস্ক:

রাস্তায় চলাচলকারী নারী পথচারীদের শরীরের স্পর্শকাতর অংশ তাক করে মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারনকারী এক যুবককে গণধোলাই দিয়েছে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ পথচারীরা মিলে। এ বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে ঘটনার দৃশ্য। দেবলীনা দৃষ্টি দাশ নামক একজন এই বিষয়টি নিয়ে পোস্ট করেছেন। তিনি যা লিখেছেন, সেটি তুলে ধরা হলো-

আজ সন্ধ্যা ৬টা ১০ মিনিটে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪ নম্বর বিল্ডিং এর সামনে এই ঘটনা ঘটেছে। ছবিতে পাঞ্জাবি পরা মানুষরূপী জানোয়ারটা তার মোবাইল দিয়ে রাস্তায় তখন থাকা সব গুলা মেয়ের বুকের ভিডিও করছে। যতগুলা মেয়ে তার সামনে দিয়ে, কিংবা পাশ দিয়ে হেঁটে গিয়েছিল প্রত্যেকটা মেয়ের জুম করে সে বুকের ভিডিও করে।

আমি বলতে বাধ্য হচ্ছি সে তার যৌন ক্ষুধা মেটানোর জন্য আমার বোনদের ভিডিও করে। সৌভাগ্যবশত আমি ও আমার বান্ধবী সেখানে ছিলাম। আমরাও তার ভিডিওতে আসার আগেই টের পাই এবং তাকে ডাক দিলেই সে তার ভিডিও করা বন্ধ করে দেয়।

তার এই হাস্যোজ্বল চেহারার পিছনে যেই হ্রিংস মনোভাব ছিল সেটাও আপনাদের জানা দরকার। নিজেকে ভাইরাল করার জন্য বা ফেমাস হওয়ার জন্য এই ভিডিওটা করা না। শুধু একটাই কথা বলব এরকম বিকৃত মস্তিষ্কের মানুষদের নিজ হাতে শেষ করুন। এরকম মানুষ পৃথিবীতে বেঁচে আছে দেখেই এত ধর্ষণ হয়। এরকম মানুষ শুধু চোখ দিয়ে মেয়ে গিলতে জানে না, এরা আরো ভয়ঙ্কর কাজও করতে পারে।

আমার সব বোনদের উদ্দেশ্যে একটাই কথা বলব আপনারা প্লিজ চুপ করে থাকবেন না। নারী শক্তি কি তা ওদের মতো জানোয়ারদের সেটা দেখিয়ে দিবেন।

অনেক ধন্যবাদ উপস্থিত থাকা ওই মানুষগুলোকে যাদের মধ্যে বেশির ভাগই ব্র্যাকের স্টুডেন্ট ছিল। আপনাদের অনেক ধন্যবাদ। আর সব থেকে বেশি ধন্যবাদ ওহী ভাইয়া তোমাকে। কারণ তুমি না দেখলে এই জানোয়ারটা কে আজ হাতে নাতে ধরতে পারতাম না। এরকম নরপিশাচকে যেখানেই পাবেন সেখানেই তা কে শাস্তি দিবেন। এদের সাফ করে ফেলতে পারলে ধর্ষণ নামক শব্দটি দেশ থেকে মুক্ত হয়ে যাবে।

বি.দ্র.- ওই জানোয়ারের করা ভিডিওটা আমি আপলোড দিলাম না, কারণ ওখানে আমার অনেক বোনদের চেহারা স্পষ্ট ভাবে দেখা যাচ্ছে। তাদের কথা চিন্তা করেই আমি দিচ্ছি না।

ভিডিওটি দেখুন:

Spread the love
  • 484
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    484
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।