অসামান্য দেশপ্রেমের পুরস্কার পেলেন তামিম

0

স্পোর্টস ডেস্ক:

এশিয়া কাপে শ্রীলংকার বিপক্ষে তামিমের সেই এক হাতে ব্যাটিংয়ের কথা টাইগার ক্রিকেটপ্রেমী হয়তো কোন দিনও ভুলতে পারবে না। সেই দিন দুবাই ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নিজেদের ব্যাটিং ইনিংসের শুরুতেই ‘রিটায়ার্ড হার্ট’ হয়ে ড্রেসিং রুমে ফিরে যান তামিম।

পরে জানা যায়, তার এশিয়া কাপই শেষ। কিন্তু তখনও করো ধারণা ছিল না সামনে কত বড় চমক আসতে যাচ্ছে। দলের প্রয়োজনে ১১ নম্বর ব্যাটসম্যান হিসেবে যখন মাঠে নামলেন সবার চোখে অবিশ্বাসের ছায়া। এ সময় এক হাতে ব্যাট করে বিরল নজির গড়েন টাইগার এই ওপেনার।

খেলার মাঠে এমন দেশাত্মবোধের প্রকাশে বাংলাদেশ ক্রীড়া লেখক সমিতির বর্ষসেরা পপুলার চয়েজ এ বিজয়ী হয়েছেন তামিম ইকবাল। শনিবার ৬ এপ্রিল ২০১৯ জমকালো অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এই পুরস্কার তুলে দেওয়া। হয়। তবে পারিবারিক কাজে ব্যস্ত থাকায় তামিমের এই পুরস্কারটি গ্রহন করেছেন বিসিবি’র পরিচালক জালাল ইউনুস।

কী ঘটেছিল সেদিন?

এশিয়া কাপের প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে চোট পান তামিম ইকবাল। সুরাঙ্গা লাকমলের বাউন্সার পুল করতে যেয়ে বাঁ-হাতের গ্লাভসে বল লাগে। সেই মুহূর্তেই ব্যথা নিয়ে তার মাঠ ছাড়তে হয়। এরপর সরাসরি নেওয়া হয় হাসপাতালে। পরবর্তীতে স্ক্যান করে জানা যায় তার বাঁ-কব্জির ওপরে বৃদ্ধাঙ্গুলির জোড়ায় চিড় ধরা পড়েছে।

সঙ্গে সঙ্গেই ক্রিকইনফো সহ সব মাধ্যম জানায় ৬ সপ্তাহের জন্য মাঠের বাহিরে থাকতে হবে তামিমকে। কিন্তু হাসপাতাল থেকে ফিরে যখন স্লিংয়ে হাত ঝুলিয়ে ড্রেসিং রুমে ছিলেন তখনই বাংলাদেশের ইনিংসে ধস নামে। দ্রুত উইকেট হারায় দল। সেই অবস্থায় মুশফিককে সঙ্গ দেওয়ার জন্য পুরো গ্যালারিকে স্তব্ধ করে ব্যাট হাতে নেমে পড়েন দেশসেরা এই ওপেনার।

যার বলে চোট পেয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছিল সেই লাকমলকে সামলেই মুশফিককে সঙ্গ দিয়ে গিয়েছেন তামিম। বাকি কাজটা সেরেছেন মুশফিক। মাত্র ২.৩ ওভারে মুশফিকের ব্যাট থেকে আসে অতি মূল্যবান ৩২টি রান। যেটা শুধু ৩২টি রানই ছিল না বরং বাংলাদেশের ১৩৭ রানের জয়ের রুপকথা হয়ে উঠে।

Spread the love
  • 306
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    306
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।