খুনের হুমকি দিয়ে শিশু বলাৎকার, মাদ্রাসা শিক্ষককে ৩ দিনের রিমান্ড

0

সময় এখন ডেস্ক:

সাভারের আশুলিয়ার কুরগাঁওয়ের আল মুসলিম মডেল মাদ্রাসার ১২ বছর বয়সী এক শিশু শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের দায়ে গ্রেপ্তার করা হয়েছে মহসীন নামক ওই মাদ্রাসার এক শিক্ষককে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৩ দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছে আদালত।

ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য বিচারিক হাকিম বুধবার সন্ধ্যায় মাদ্রাসা শিক্ষক মো. মহসীন আলীর (২৫) রিমান্ড মঞ্জুর করেন। তবে বিষয়টি জানা যায় বৃহস্পতিবার।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আশুলিয়া থানার এস আই বদরুজ্জামান শিক্ষক মহসীনকে আদালতে হাজির করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৫ দিনের রিমান্ড চেয়েছিলেন। মহসীনের পক্ষে রিমান্ড আবেদন বাতিল চেয়ে আবেদন করেছিলেন তার আইনজীবী।

ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য বিচারিক হাকিম এ এফ এম মারুফ চৌধুরী শুনানি শেষে তার ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন বলে এ আদালত পুলিশের প্রসিকিউশন বিভাগের পরিদশর্ক মো. আসাদুজ্জামান জানান।

রিমান্ড আবেদনে বলা হয়, ওই বালকটি গত ১০ মার্চ দুপুর ২টার দিকে নিজ ঘরে ভাত খেতে এসে কান্নাকাটি করলে তার মা তাকে জিজ্ঞেস করেন, কেন কাঁদছে। পরে শিশুটি জানায়, আগের রাতে প্রায় ১২টার দিকে তাকে নিজ কক্ষে নিয়ে জোরপূর্বক বলাৎকার করেন তার মাদ্রাসা শিক্ষক মহসীন। শিশুটি তার মাকে আরও জানায় যে, এই ঘটনাটি কাউকে বললে তাকে প্রাণে মেরে ফলার হুমকিও দেন ওই শিক্ষক।

রিমান্ড আবেদনে আরো বলা হয়, এই শিক্ষকের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদেরকে বলাৎকারের এ রকম অভিযোগ আগেও কয়েকবার এসেছে। তার অত্যাচারে অনেক ছাত্র ওই মাদ্রাসা ছেড়ে চলে গেছে। এমনকি সেই শিক্ষকের বিরুদ্ধে কর্তৃপক্ষকে জানানো হলেও কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। অতএব কতদিন ধরে সে এই জঘন্য কাজ করছে, তার ইন্ধনদাতা ও প্রশ্রয়দাতা কে আছে, তা জানার জন্য হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ জরুরি।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের এ মামলায় গত মঙ্গলবার শিশুটির জবানবন্দি নেন একই আদালতের অপর বিচারক রাজীব হাসান।

Spread the love
  • 737
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    737
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।