এবার নাগরিকত্ব হারালো আইএসের ২ পাকিস্থানি যৌন জিহাদী বোন!

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক পিতা-মাতার সন্তান শামিমা বেগম যৌন জিহাদি হিসেবে আাইএসে যোগ দেয়ার ঘটনায় নাগরিকত্ব হারায়। ঠিক একই ঘটনায় এবার নাগরিকত্ব হারালো আইএসে যোগ দেয়া আরও দুই ব্রিটিশ নারী। বর্তমানে ওই নারীরা তাদের সন্তানদের নিয়ে সিরিয়ার একটি শরণার্থী ক্যাম্পে রয়েছে।

সিরিয়ার শরণার্থী ক্যাম্পে আশ্রয় নেয়া শামিমা বেগমের শিশু সন্তানের মৃত্যুর ঘটনা নিয়ে সমালোচনার মধ্যেই আরও ২ নারীর নাগরিকত্ব হারানোর বিষয়টি সামনে এলো। শামিমা বেগম মাত্র ১৫ বছর বয়সে লন্ডন থেকে পালিয়ে সিরিয়ায় পাড়ি জমায়। সেখানে আইএসের এক যোদ্ধাকে বিয়ে করে সে। একইসাথে আইএস জঙ্গিদের যুদ্ধকালীন সময়ে মনোরঞ্জনের জন্য নিজেকে উৎসগ্য করে। নিজের শিশু সন্তানের জন্য ব্রিটেনে ফিরতে চেয়েছিল শামিমা। কিন্তু তার নাগরিকত্ব বাতিল করে দেয় ব্রিটেন।

সানডে টাইমসের এক খবরে সম্প্রতি নাগরিকত্ব হারানো আরও ২ নারীর পরিচয় জানানো হয়েছে। এদের মধ্যে একজনের নাম- রিমা ইকবাল এবং অপরজন তার বোন জারা। তারা দু’জনই লন্ডনের পূর্বাঞ্চল থেকে পালিয়ে সিরিয়ায় আইএসে যোগ দিয়েছিল।

এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে জানতে চাওয়া হলে এর কার্যালয় থেকে জানানো হয়েছে যে, তারা এমন আলাদা আলাদা ঘটনার জন্য মন্তব্য করে না।

বর্তমানে রিমার বয়স ৩০ এবং জারার ২৮। তারা বর্তমানে পৃথক দু’টি শরণার্থী শিবিরে রয়েছে। সেখানে তাদের সঙ্গে আরও কয়েক হাজার পরিবার রয়েছে। তারা সবাই আইএস নিয়ন্ত্রিত এলাকা থেকে পালিয়ে এসেছে।

এই দুই নারী ৫ সন্তানের জননী। এই শিশুদের বয়স ৮ বছরের নিচে। এই নারীদের বাবা-মা পাকিস্থানি। তবে তাদের দু’জনের দ্বৈত নাগরিকত্ব আছে কিনা সে বিষয়ে জানা যায়নি। ২০১৩ সালে সিরিয়ায় পাড়ি জমায় এই দুই বোন। তারা দু’জন সিরিয়ায় যাওয়ার আগেই আইএসের দুই যোদ্ধাকে বিয়ে করে। সেখানে গিয়ে শামিমার মতো তারাও আইসএস জঙ্গিদের জন্য নিজেদের উৎসর্গ করে।

সিরিয়ায় পাড়ি দেয়ার সময় গর্ভবতী ছিল জারা। সেখানে যাওয়ার পর সে ৩য় সন্তানের জন্ম দেয়। অপরদিকে রিমার এক ছেলের জন্ম ব্রিটেনে এবং অপরজনের সিরিয়ায়।

Spread the love
  • 2.3K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2.3K
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।