কেন সালমানের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা- জানালেন মন্ত্রী

0

সময় এখন ডেস্ক:

‘অভদ্র প্রেম’ নামের একটি অশ্লীল কনটেন্টযুক্ত ভিডিও ইউটিউবে পোস্ট করার দায়ে ফেঁসে যাচ্ছেন সমালোচিত ইউটিউবার সালমান মুক্তাদির। বিষয়টি নিয়ে তার ওপর ক্ষিপ্ত এবং বিরক্ত ভক্তরাও। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাকে রীতিমত ধুয়ে দিয়েছেন বিভিন্ন স্তরের মানুষজন। এই ঘটনা দৃষ্টি এড়ায়নি ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি (আইসিটি) মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারেরও। তিনি জানান দিয়েই সালমান মুক্তাদিরের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করলেন।

গতকাল সোমবার নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকে সালমান মুক্তাদিরের অবস্থান জানতে চেয়ে একটি স্ট্যাটাস দেন তিনি। ওই স্ট্যাটাসে মন্ত্রী লেখেন, ‘কেউ কি সালমান মুক্তাদিরের আজকের অবস্থা জানাতে পারবেন?’

সেই পোষ্টটি পড়ে অনেকেই অবাক হয়েছেন। সেখানে মন্ত্রীকে প্রশ্ন করা হয় এ বিষয়ে। কিন্তু পোষ্টে বিষয়টি নিয়ে আর আলোচনা করেননি তিনি।

এরপর এ বিষয়ে গণমাধ্যমকে মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘আমি সালমানদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করছি, এটা আমি করতেছি।’

সালমান মুক্তাদিরকে জিজ্ঞাসাবাদ

ইন্টারনেটে অশ্লীল ও অপ্রাসঙ্গিক কনটেন্ট আপলোডের অভিযোগে ইউটিউবার সালমান মুক্তাদিরকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আজ মঙ্গলবার ডিএমপির সাইবার ক্রাইম ইউনিটে নেওয়া হয়েছে।

ডিএমপির সাইবার সিকিউরিটি ও ক্রাইম বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) নাজমুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার স্যারের সেফ ইন্টারনেট স্লোগানকে সামনে রেখে সালমান মুক্তাদিরকে ডিএমপির সাইবার ক্রাইম ইউনিটের কার্যালয়ে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এ বিষয়ে বিস্তারিত পরবর্তীতে জানানো হবে।

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগে সালমান মুক্তাদির তার ইউটিউব চ্যানেলে ‘অভদ্র প্রেম’ টাইটেলে একটি গানের ভিডিও প্রকাশ করেন। ভিডিওটি অশ্লিলতার দায়ে সমালোচনার মুখে পড়েন সালমান মুক্তাদির। এরপর তার ইউটিউব চ্যানেল এর সাবস্ক্রাইবার কমতে থাকে।

উল্লেখ্য, এর আগে সানাই মাহবুব নামক অপর এক উঠতি মডেলকেও ডিএমপির সাইবার সিকিউরিটি ও ক্রাইম বিভাগে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নেয়া হয় গত সোমবার। তার বিরুদ্ধে ফেসবুকে অশ্লীলতাপূর্ণ ভিডিও আপলোডের অভিযোগ ছিল। জিজ্ঞাসাবাদের পর তার কাছ থেকে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়।

Spread the love
  • 84
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    84
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।