বঞ্চিত প্রার্থীদের পোস্টার ছিঁড়লেন রাজাকার গোলাম আযমের আত্মীয় স্টিফেন!

0

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংবাদদাতা:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ‘একক প্রার্থী’ যুদ্ধাপরাধী সংগঠন জামায়াতে ইসলামীর প্রয়াত আমির কুখ্যাত রাজাকার গোলাম আযমের আত্মীয় হাবিবুর রহমান স্টিফেনের সমর্থকদের বিরুদ্ধে মনোনয়নবঞ্চিত ৩ প্রার্থীর ব্যানার-পোস্টার ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ উঠেছে।

রবিবার বিকালে নবীনগর উপজেলা সদরে মনোনয়নপ্রত্যাশী কাজী জহির সিদ্দিক টিটু, অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম ফেরদৌস ও এইচএম আল-আমিন আহমেদের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করে তাদের নির্বাচনী ব্যানার-পোস্টার ছিঁড়ে ফেলেন স্টিফেন সমর্থকরা।

এর আগে শনিবার সকাল ১১টায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করে হাবিবুর রহমান স্টিফেনের বিরুদ্ধে ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা ও যুদ্ধাপরাধী গোলাম আযমের আত্মীয় এবং তার স্থাপনা দেখাশোনা করার বিষয়ে বক্তব্য দেন মনোনয়নপ্রত্যাশী ওই ৩ প্রার্থী। এর প্রতিবাদেই বিক্ষোভ করেছেন স্টিফেন সমর্থকরা। স্টিফেন নবীনগরের বীরগাঁও গ্রামের সোনা মিয়া সরকারের ছেলে ও আমেরিকা প্রবাসী দ্বৈত ধর্মের অধিকারী বিতর্কিত ব্যক্তি। বীরগাঁও গ্রামে রাজাকার গোলাম আযম প্রতিষ্ঠিত সোবহানিয়া দাখিল মাদ্রাসা পরিচালনা করেন হাবিবুর রহমান স্টিফেন।

রবিবার বিকালে নবীনগর উপজেলা পরিষদের ডাক-বাংলোর সামনে থেকে স্টিফেন সমর্থকরা একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। যদিও বিক্ষোভ মিছিলের ব্যানারে আয়োজকের নাম ছিল না। বিক্ষোভ মিছিলটি উপজেলা সদরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে স্থানীয় থানা ভবনের সামনে গিয়ে শেষ হয়। এরপর সেখানে প্রতিবাদ সভা করেন বিক্ষুব্ধরা।

উপজেলা আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক মো. নাসির উদ্দিনের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন- নবীনগর পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খায়রুল আমিন, ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহাবুব রহমান প্রমুখ।

এ সময় ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ (নবীনগর) আসনের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ এবাদুল করিমের নির্দেশে বিক্ষুব্ধরা মনোনয়নবঞ্চিত ওই ৩ প্রার্থীর লাগানো নির্বাচনী কিছু ব্যানার ও পোস্টার ছিঁড়ে ফেলেন বলে অভিযোগ করেন মনোনয়নপ্রত্যাশী ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এইচএম আল-আমিন আহমেদ।

এইচএম আল-আমিন আহমেদ অভিযোগ করে বলেন, এমপির (মোহাম্মদ এবাদুল করিম) নির্দেশে আমরা যারা সংবাদ সম্মেলন করেছি তাদের পোস্টার-ব্যানার ছেঁড়া হয়েছে। আমাদের বিরুদ্ধে শ্লোগান দিয়েছে। আমরা বিষয়টি দলের হাইকমান্ডকে জানিয়েছি।

এ ব্যাপারে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমএ হালিম বলেন, নবীনগর উপজেলা ছাত্রলীগের কোনো কমিটি নেই। আজকের বিক্ষোভ মিছিলে ছাত্রলীগের সঙ্গে উপজেলা আওয়ামী লীগের কয়েকজন অংশগ্রহণ করে থাকতে পারেন।

Spread the love
  • 218
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    218
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।