‘মোদির বেলায় প্রশংসা আর আমার বেলায় তিরস্কার?’

0

বিনোদন ডেস্ক:

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হতে হিরো আলম মনোনয়ন ফরম কিনেছেন। এমন খবর প্রকাশ হতেই চারদিকে শোরগোল পড়ে যায়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের এই তারকাকে নিয়ে হাস্যরস আর বিদ্রুপের ঝড় উঠে। নানা জায়গায় নানা আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয়। তার বাচনভঙ্গি এবং শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়েও কটাক্ষ করছেন সমালোচকরা।

তবে এসব আলোচনা-সমালোচনাকে বিন্দুমাত্র আমোলে নিচ্ছেন না বগুড়ার নায়ক হিরো আলম। বরং এই ব্যঙ্গকে উড়িয়ে দিয়ে তিনি অনুপ্রেরণা হিসেবে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির উদাহরণ টেনেছেন।

তার কথায়, ‘সাধারণ চা বিক্রেতা হিসেবে জীবন শুরু করা রাজনীতিবিদ নরেন্দ্র মোদি যদি আজ ভারতের মতো একটি বড় দেশের প্রধানমন্ত্রী হতে পারেন, তবে আমি সংসদ নির্বাচনে লড়াই করতে চাইলে লোকের হিংসা হয় কেন? আমি এদেশের নাগরিক। সুন্দর বাংলাদেশ গড়তে আমিও ভূমিকা রাখতে পারি।’

এক সময় বগুড়ায় সিডির ব্যবসা করতেন হিরো আলম। ঢাকায় এসে শুরু করেন ডিশ লাইনের ব্যবসা। এরপর নিজের খরচে বেশ কিছু মিউজিক ভিডিও, শর্টফিল্ম বানিয়ে, সেগুলো ফেসবুক ও ইউটিউবে আপলোড করে রাতারাতি দেশব্যাপী পরিচিত হয়ে ওঠেন তিনি।

সেই হিরো আলম এখন নিজেকে আন্তর্জাতিক তারকা হিসেবে মনে করেন। দেশের ছবিতে কাজ করেছেন। ডাক পেয়েছেন বলিউড এবং কলকাতার ছবিতেও। বলেন, ‘ফেসবুকে আমার প্রায় সাড়ে ৩ লাখ ফলোয়ার। অথচ আমাকে অনেকে ব্যঙ্গ করছেন।’

আত্মবিশ্বাস নিয়ে তিনি বলেন, ‘হিরো আলম জীবনে কারো কোনো ক্ষতি করেনি। মানুষকে কথা দিয়েছিলাম, আবার নির্বাচনে নামলে জাতীয় সংসদের ভোটে প্রার্থী হব। এ জন্যই মনোনয়ন ফরম কিনেছি। হিরো আলম কাউকে কোনো কথা দিলে তা রাখে।’

হিরো আলম তার এলাকায় মেম্বার প্রার্থী হয়ে একাধিকবার নির্বাচন করেছেন। প্রতিবারই হেরেছেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হতে তিনি জাতীয় পার্টির মনোনয়ন ফরম কিনেছেন। বগুড়া-৪ আসনের মনোনয়ন চেয়ে তিনি দলটির কেন্দ্রীয় কমিটিতে ফরম জমা দিয়েছেন।

Spread the love
  • 234
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    234
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।