নুনু মিয়ার ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা গৃহকর্মীর প্রতারণা মামলা দায়ের

0

সিলেট সংবাদদাতা:

ধর্ষণের অভিযোগে এক লন্ডন প্রবাসীকে আটক করেছে পুলিশ। তার নাম নুনু মিয়া (৫৫)। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন গৃহকর্মী। প্রতারণার শিকার তরুণীকে তিনি নিয়মিত ধর্ষণ করতেন বলে জানা গেছে।

গতকাল সোমবার বিকেলে সিলেটের ওসমানীনগর উপজেলার গোয়ালাবাজার এলাকার ‘খাজা ভিলা’ থেকে তাকে আটক করে পুলিশ। আটক প্রবাসী উপজেলার ব্রাহ্মণ গ্রামের মৃত রহিম উদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, এক বছর ধরে যুক্তরাজ্য প্রবাসী নুনু মিয়ার বাড়িতে গৃহকর্মী হিসেবে কাজ করছেন একই উপজেলার সাদিপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ কালনীচর গ্রামের ১৯ বছর বয়সী এক তরুণী।

বিদেশ থেকে তার জন্য বিভিন্ন দামী প্রসাধন সামগ্রী, দামী মোবাইল ফোন এবং অন্যান্য জিনিস এনে দেয়ার লোভ দেখাতেন। তাকে বিয়ে করে বিদেশে নিয়ে যাবেন বলে প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন নুনু মিয়া। নিজ বাড়িতে থাকার সুবাদে ওই তরুণীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রতিদিনই ধর্ষণ করতেন তিনি।

এভাবে নিয়মিত দেহ সম্ভোগের কারনে এক পর্যায়ে ওই তরুণী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে তাকে ভয়ভীতি দেখিয়ে গোপনে ওষুধ সেবন করিয়ে ভ্রুণ নষ্ট করান। এরপর পুনরায় তাকে ধর্ষণ করা শুরু করেন নুনু মিয়া।

এসবের ফলে এক পর্যায়ে ওই তরুণী বুঝতে পারেন তিনি প্রতারিত হচ্ছেন। নুনু মিয়া তাকে বিয়ে করবে না। শুধু শরীরের লোভে তাকে ভোগ করে যাচ্ছে। প্রতারণার বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে নুনু মিয়াকে আসামি করে ওই তরুণী ওসমানীনগর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে গতকাল রোববার একটি মামলা করেন। মামলার পর সোমবার বিকেলে ওসমানীনগর থানা পুলিশের একটি দল নুনু মিয়াকে তার বাড়ি থেকে আটক করে।

ওসমানীনগর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এসএম আল মামুন ধর্ষণের অভিযোগে যুক্তরাজ্য প্রবাসী নুনু মিয়াকে আটক করা হয়েছে। বর্তমানে তাকে থানা হাজতে রাখা হয়েছে। মঙ্গলবার তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হবে বলে জানান তিনি।

Spread the love
  • 138
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    138
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।