রাষ্ট্রীয় সম্পদ রক্ষায় জর্ডানের সব মসজিদ চলছে সৌরশক্তিতে

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

বিদ্যুৎ খরচ কমানোর মাধ্যমে রাষ্ট্রীয় অর্থ সাশ্রয় এবং পরিবেশ রক্ষা করতে জর্ডানের প্রায় শতভাগ মসজিদে নবায়নযোগ্য জ্বালানি ব্যবহৃত হচ্ছে। সরকারি উদ্যোগে মাত্র ৪ বছরের মধ্যেই এমনটি সম্ভব হয়েছে।

দেশটির গ্রিন কনসালটেন্সিতে কাজ করা কর্মকর্তা ইয়াজান ইসমাইল থমসন রয়টার্স ফাউন্ডেশনকে জানান, ২০১৪ সালে ধর্ম মন্ত্রণালয় আম্মানের মসজিদগুলোকে সবুজ করার প্রকল্প শুরু করে। প্রকল্প বাস্তবায়ন এতটাই সফল হয়েছে যে, অনেক মসজিদ এখন তাদের উৎপাদিত অতিরিক্ত বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে বিক্রি করে সেই অর্থ মসজিদের নিজস্ব ফান্ডে ব্যবহার করছে।

আম্মানের তা’লা আল-আলি মসজিদের ইমাম বলেন, সৌরশক্তি ব্যবহারের প্রধান কারণ, ধর্মীয় দায়িত্ব পালন করা। কারণ ইসলাম ধর্মে প্রাকৃতিক সম্পদ রক্ষার আহ্বান জানানো হয়েছে। এছাড়া সৌরশক্তি ও এলইডি বাল্ব ব্যবহারের কারণে মসজিদ কর্তৃপক্ষ আর্থিকভাবে লাভবান হচ্ছে। মসজিদের সৌন্দর্য্য বর্ধনে যে আলোকসজ্জা করা হয়, মুসল্লিদের ইবাদত বন্দেগি নির্বিঘ্ন করতে শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা, বৈদ্যুতিক পাখা, পানির পাম্প ইত্যাদি ব্যবহৃত হচ্ছে, তাতে প্রচুর বিদ্যুৎ প্রয়োজন। কিন্তু রাষ্ট্রীয়ভাবে উৎপাদিত ব্যয়বহুল বিদ্যুৎ এই খাতে ব্যবহার করাটা বাহুল্য। যা কলকারখানায় ব্যবহারের মাধ্যমে রাষ্ট্র তথা দেশের মানুষ উপকৃত হতে পারে। সেজন্যই আমরা সৌরবিদ্যুত ব্যবহারের মাধ্যমে দেশ গড়ার কাজে শরিক হয়েছি।

আম্মান হচ্ছে বিশ্বের ৭০টি শহরের একটি, যারা ২০৫০ সালের মধ্যে ‘কার্বন নিরপেক্ষ’ হওয়ার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে। এর মানে হচ্ছে, এই শহরগুলো যে পরিমাণ জলবায়ু পরিবর্তনকারী গ্যাস নির্গমন করবে, তার চেয়ে বেশি কার্বন ডাই-অক্সাইড শোষণকারী গাছ লাগাবে কিংবা অন্য কোনো পরিবেশবান্ধব প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে।

দেশটির পরিবেশমন্ত্রী নায়েফ হামাইদি আল-ফায়েজ থমসন বলেন, ‘আমরা ২০৩০ সালের মধ্যে গ্রিনহাউস গ্যাস নির্গমন ৪০ শতাংশ কমিয়ে আনার অঙ্গীকার করেছি।’

২০২২ সালের মধ্যে দেশের মোট জ্বালানি চাহিদার ২০ শতাংশ নবায়নযোগ্য জ্বালানি দিয়ে মেটানোর লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে জর্ডান। নির্দিষ্ট সময়ের আগেই লক্ষ্যপূরণ সম্ভব হবে বলে মনে করছেন আল-ফায়েজ। সে লক্ষ্যে শুধু মসজিদ নয়, ঘরবাড়ি, স্কুল, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও সরকারি ভবনের ছাদেও সোলার প্যানেল বসানো হচ্ছে বলে জানান তিনি।

সূত্র: ডয়চে ভেলে

Spread the love
  • 164
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    164
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।