বিবি আসিয়ার রায় ঘিরে উত্তাল পাকিস্থান!

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ইসলাম ধর্ম অবমাননার অভিযোগে নিম্ন আদালতে মৃত্যদণ্ড পাওয়া খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বী বিবি আসিয়াকে মুক্তির আদেশ দিয়েছে পাকিস্থান সুপ্রিম কোর্ট। এরপরই এ রায়ের বিরুদ্ধে পাকিস্থানজুড়ে বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। পাকিস্থানের সুপ্রিম কোর্ট বুধবারের রায়ে বলেছে, বিবি আসিয়ার বিরুদ্ধে অন্য কোনো মামলা না থাকলে তিনি মুক্ত হয়ে বেরিয়ে যেতে পারেন।

এ মামলায় বিচারক বলেছেন, বাদীপক্ষ সন্দেহাতীতভাবে অভিযোগ প্রমাণ করতে পারেনি। তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এ মামলা করা হয়েছে। এক্ষেত্রে যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ করা হয়নি। খবর আল জাজিরার।

রায় দেয়ার সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন না বিবি আসিয়া। রায় শোনার পর তার আইনজীবী সাইফুল মুলুক বলেছেন, এই রায় আমাদের দেখিয়ে দিয়েছে যে পাকিস্থানে দরিদ্র, সংখ্যালঘু ও সমাজের নিচু স্তরের মানুষরাও সুবিচার পায়।

ওই রায়ের প্রতিক্রিয়ায় ইসলামাবাদসহ পাকিস্থানজুড়ে অসন্তোষ ছড়িয়ে পড়েছে। মুসলমানরা ইসলামাবাদ, করাচি ও রাওয়ালপিন্ডিসহ দেশটির বড় শহরগুলোর প্রধান সড়ক অবরোধ করতে শুরু করেছে। বাড়ানো হয়েছে সুপ্রিম কোর্টের নিরাপত্তা।

ইসলামাবাদ পুলিশ জানিয়েছে, ফয়জাবাদ থেকে কাশ্মীরের হাইওয়ে বিক্ষোভকারীরা অবরোধ করে রেখেছে। নিরাপত্তার স্বার্থে সেসব অঞ্চল এড়িয়ে চলার আহ্বান জানানো হয়েছে পুলিশের পক্ষ থেকে। রাজধানীতে আধা-সামরিক বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে ও গুরুত্বপূর্ণ এলাকাগুলোতে প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। করাচিরও বেশিরভাগ এলাকায় বিক্ষোভের কারণে যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। সেখানে রাস্তা অবরোধ করে আগুন জ্বালানোর খবর পাওয়া গেছে। কয়েকটি দলের হুমকির মুখে পাঞ্জাব সরকার সেখানে ১৪৪ ধারা জারি করেছে।

এ বিষয়ে দেশটির সাধারণ জনগণকে শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন পাকিস্থানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

ইসলাম অবমাননার দায়ে দীর্ঘ ৮ বছর ধরে জেলে আটক রয়েছে বিবি আসিয়া। তিনি প্রথম থেকেই নিজেকে নির্দোষ দাবি করে আসছিলেন। আসিয়া বিবি ২০০৯ সালের জুন মাসে লাহোরের কাছে শেখুপুরা এলাকায় ইসলাম অবমাননা করে বলে অভিযোগ রয়েছে। এ অভিযোগেই পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

Spread the love
  • 49
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    49
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।