আল্লামা আহমদ শফি’র মৃত্যু: গুজব না সত্যি?

0

বৃহস্পতিবার (৮ জুন) সন্ধ্যা থেকেই হেফাজতে ইসলামের আমির শাহ আহমদ শফীর মৃত্যু সংবাদ অনলাইন গণমাধ্যমসহ অনেক মাধ্যমেই ছড়িয়ে পড়ে।

মুহুর্তেই খবরটা দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়ে। হাসপাতালের আশে পাশে সর্বত্রই অনুরাগী এবং উৎসুক জনতার ভীড় পড়ে যায়।

কিন্তু এটি ছিলো নিছক গুজব!‍ চিকিৎসাধীন আহমদ শফীর মৃত্যুর গুজব ছড়ালেও সংগঠনটির নেতারা জানিয়েছেন, তার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল আছে। তবে আগের চাইতে উন্নতি দেখা যায়নি এখনো।

বৃহস্পতিবার রাত সোয়া ৯টায় হেফাজতের সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক ইসলামবাদী বলেন, “রাত নয়টার পরে হুজুরের বড় ছেলে ও অন্যদের সঙ্গে কথা বলেছি। হুজুরের শারীরিক অবস্থা আগের মতোই। কোনো ধরনের গুজবে কান না দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।”

৯৫ বছর বয়সী আহমদ শফীকে মঙ্গলবার চট্টগ্রাম থেকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকায় এনে গেণ্ডারিয়ার আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তিনি আইসিইউতে রয়েছেন।

বৃহস্পতিবার রাতে ফেইসবুকে হেফাজত আমিরের মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে পড়ে। এরপরই রাত সাড়ে ৮টার দিকে হেফাজতের প্রচার সম্পাদক মুনীর আহমেদ নিজের ফেইসবুক পেইজে একটি স্ট্যাটাসে জানান আমিরের অবস্থা আগের মতোই স্থিতিশীল রয়েছে।

তিনি লিখেছেন, “প্রভু! টেলিফোনের যন্ত্রণা থেকে রক্ষা করো এবং চিকিৎসাধীন হেফাজত আমীরের নামে বার বার মিথ্যা গুজব রটনাকারীদেরকে তুমি হেদায়াত করো। হেফাজত আমীর আইসিইউতে চিকিৎসাধীন আছেন। শারীরিক অবস্থা গতকালের মতোই স্থিতিশীল। দোয়া করবেন সকলে।”

চিকিৎসাধীন হেফাজত আমিরকে দেখতে বিকালে হাসপাতালে গিয়েছিলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এর আগে বুধবার রাতে আমিরের বড় ছেলে মাওলানা মোহাম্মদ ইউসুফ জানান, হেফাজতে ইসলামের আমির শাহ আহমদ শফীর অবস্থা স্থিতিশীল হলেও শঙ্কা কাটেনি।

হাসপাতালের চিকিৎসক এ আর এম নুরুজ্জামানের উদ্ধৃতি দিয়ে ইউসুফ বলেন, “তিনি (হেফাজত আমির) ইউরিন ইনফেকশন, নিউমোনিয়া, উচ্চরক্তচাপ, ডায়াবেটিস ও হৃদরোগসহ বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন জটিলতায় ভুগছিলেন।

“শুরুতে তার অবস্থা অত্যন্ত সঙ্কটাপন্ন হলেও বর্তমানে তিনি আগের চেয়ে কিছুটা স্থিতিশীল অবস্থায় রয়েছেন। কিন্তু এখনও তিনি আশঙ্কামুক্ত নন।”

বিভিন্ন বিষয়ের বিশেষজ্ঞের সমন্বয়ে গঠিত একটি মেডিকেল বোর্ড হেফাজত আমিরের চিকিৎসায় নিয়োজিত রয়েছেন।

শারীরিক দুর্বলতা ও শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা নিয়ে গত ১৮ মে থেকে চট্টগ্রাম নগরীর প্রবর্তক মোড়ের সিএসসিআর নামে একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন আহমদ শফী। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় আনা হয়।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।