‘বাধ্যতামূলক’ হিজাব পরে ইরানে খেলতে রাজি নন ভারতীয় গ্র্যান্ডমাস্টার সৌম্য

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ইসলামিক প্রজাতন্ত্র ইরানে অনুষ্ঠিতব্য এশিয়ান টিম দাবা চ্যাম্পিয়নশিপ প্রতিযোগিতায় যোগ দিতে অসম্মতি জ্ঞাপন করেছেন ভারতের মহিলা গ্র্যান্ডমাস্টার সৌম্য স্বামিনাথন। তিনি নিজেই এই চ্যাম্পিয়নশিপ প্রতিযোগিতা থেকে নাম প্রত্যাহার করার আবেদন করেছেন।

ইরানের হামাদানে ২৬ জুলাই থেকে ৪ আগস্ট পর্যন্ত এই চ্যাম্পিয়নশিপ চলবে। কিন্তু এই খেলায় যেসব নারী প্রতিযোগীরা অংশ নেবেন তাদের প্রত্যেকের মাথায় হিজাব থাকা বাধ্যতামূলক বলে জানিয়ে দেয়া হয়েছে এশিয়ান টিমের পক্ষ থেকে। কারণ যে দেশে এই চ্যাম্পিয়নশিপ হচ্ছে, এটা সেখানকার নিয়ম।

কিন্তু এই অদ্ভূত নিয়মের প্রতিক্রয়ায় সৌম্য স্বামিনাথন জানান, এমন ‘বাধ্যতামূলক’ নিয়ম তার ব্যক্তিগত অধিকারকে খর্ব করছে। সৌম্য তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক পোস্টে এ বিষয়ে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

আরও পড়ুন  মাশরাফির পর ওয়ানডের দায়িত্ব রিয়াদের কাঁধে?

তিনি বলেন, ‘ইরানি আইনে মাথায় হিজাব বাধ্যতামূলক ঠিকই, কিন্তু এই নিয়ম আমার মানবিক অধিকারকে খর্ব করছে। পাশাপাশি আমার মতপ্রকাশ, চিন্তা, বিবেক এবং ধর্মের অধিকারকেও লঙ্ঘন করছে। এরকম পরিস্থিতিতে আমি ইরানে এই খেলায় অংশ না নিয়ে নিজের অধিকারকে রক্ষা করাটাই শ্রেয় বলে মনে করি।’‌


ছবি: বাধ্যামূলক হিজাবের বিরুদ্ধে ইরানি মেয়েরা প্রতিবাদ করছেন দীর্ঘদিন ধরে। প্রকাশ্যে হিজাব পোড়ানো হচ্ছে সেখানে।

সৌম্য মনে করেন যে, ইরানের ধর্মীয় পোশাক রীতি কোনোভাবেই খেলোয়াড়দের ওপর প্রয়োগ করা উচিত নয়।

তিনি বলেন, ‘‌কর্তৃপক্ষ অবশ্যই আশা করেন যে আমরা আমাদের জাতীয় দলের পোশাক বা স্পোর্টস পোশাক পরেই আসব। কিন্তু খেলায় কখনই কোনও খেলোয়াড়দের ধর্মীয় পোশাক পরতে বাধ্য করতে পারে না কেউ।’

আরও পড়ুন  রোনালদোকে নিয়ে ভাবছে না মেক্সিকো!

সৌম্য তার ফেসবুকের মধ্য দিয়েই জানিয়ে দেন যে তিনি এই এশিয়ান দাবা চ্যাম্পিয়নশিপে বোরকা বা মাথায় হিজাব পরে অংশ নিতে পারবেন না। তবে তাকে জাতীয় দলের জন্য নির্বাচন করা হয়েছে বলে তিনি ধন্যবাদ জানাতেও ভোলেন না। এটা প্রথমার নয়, এর আগেও একই সমস্যা নিয়ে ২০১৬ সালে ভারতীয় শুটার হিনা সিধুও ইরানে অনুষ্ঠিত হওয়া এশিয়ান এয়ারগান মিট থেকে নিজের নাম তুলে নেন।

সূত্র: আজকাল

Spread the love
  • 336
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    336
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।