গুগল ফেসবুক ইউটিউব থেকে বিগত ১০ বছরের রাজস্ব আদায়ের নির্দেশ

0

বিজ্ঞান প্রযুক্তি ডেস্ক:

গুগল, ইয়াহু, ইউটিউব, আমাজন, ফেসবুকসহ অন্যান্য ইন্টারনেট সেবাপ্রদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে ভ্যাট, ট্যাক্সসহ সব ধরনের রাজস্ব আদায়ে সরকার‌কে নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। একই স‌ঙ্গে বিগত ১০ বছরে কী পরিমাণ টাকা এসব প্র‌তিষ্ঠান দেশ থেকে নিয়ে গেছে তা নির্ধারণে একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করে ব‌কেয়া রজস্ব আদায় করার নি‌র্দেশও দি‌য়ে‌ছে দেশের সর্বোচ্চ আদালত।

পড়ুন: গুগল, ফেসবুক, অ্যামাজন, ইয়াহু, ইউটিউবকে ৬ আইনজীবীর লিগ্যাল নোটিশ!

এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে আজ বৃহস্প‌তিবার বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামালের হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন। এ ছাড়া আদালত এসব প্রতিষ্ঠান থেকে রাজস্ব আদায়ের কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছে।

আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে অর্থসচিব, আইনসচিব, ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব, তথ্যসচিব, বাংলদেশ ব্যাংকের গর্ভনর, এনবিআরের চেয়ারম্যান, বিটিআরসির চেয়ারম্যান, প্রথম আলোর সম্পাদক ও বাংলাদেশ নিউজ পেপারস ওনারস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মতিউর রহমান, গুগল, ফেসবুক, আমাজন, ইয়াহু ও ইউটিউব কর্তৃপক্ষকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। রাজস্ব ফাঁকির অভিযোগে এসব প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে গত ৯ এপ্রিল রিটটি দায়ের করেন হাইকোর্টের ৬ জন আইনজীবী।

আদালতে আবেদনের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার মোহাম্মদ হুমায়ন কবির পল্লব। তাকে সহযোগিতা করেন ব্যারিস্টার মো. কাউছার, ব্যারিস্টার মাজেদুল কাদের, ব্যারিস্টার সাজ্জাদুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট অপূর্ব কুমার বিশ্বাস। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন সাজু।

পরে ব্যারিস্টার মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির পল্লব ব‌লেন, প্রযুক্তির যুগে গুগল, ফেসবুক, ইউটিউব এখন প্রাত্যহিক জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ। ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা এখন সোশ্যাল মিডিয়ার প্লাটফর্মে বিজ্ঞাপন দেখতে আগ্রহী। দিন দিন এর ব্যবহার বাড়ছে। বাড়ছে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা। এ সুযোগে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করে এ দেশ থেকে কোটি কোটি ডলার নিয়ে যাচ্ছে ইন্টারনেট সংশ্লিষ্ট বিশ্বের নামীদামি প্রতিষ্ঠানগুলো।

পল্লব বলেন, ‘কিন্তু প্রতিষ্ঠানগুলো সরকারকে ১ টাকাও রাজস্ব দিচ্ছে না। এ কারণে আমরা হাইকোর্টে আবেদন করি।’

Spread the love
  • 35
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    35
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।