চিত্রনায়িকা কবরীকে হত্যার হুমকি!

0

বিনোদন ডেস্ক:

বাংলা চলচ্চিত্রের প্রথম সুপারস্টার নায়িকা কবরী সারোয়ারকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ উঠেছে। এমনকি, তাকে মেরে ফেলার হুমকি পর্যন্ত দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি। গতকাল মঙ্গলবার গুলশান ২-এ নিজ বাসার নিচে এ ঘটনা ঘটে। এ জন্য গুলশান থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন তিনি। বিষয়টি নিশ্চিত করেন গুলশান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু বকর সিদ্দিক।

গুলশানে একটি ৫ তলা ভবনে দীর্ঘদিন ধরেই বসবাস করে আসছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর সাবেক সাংসদ ও চিত্রনায়িকা কবরী সারোয়ার। তার অভিযোগ, গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে ওই ভবনের অন্য দুটি ফ্ল্যাটের কয়েকজন কর্মচারী, তাদের সাথে অন্য বহিরাগত লোক নিয়ে ভবনের ভেতরে প্রবেশ করতে গেলে ভবনের কেয়ারটেকার ও নিরাপত্তাকর্মীরা তাদেরকে বাধা দেন। কিন্তু ওই দুই ফ্ল্যাটের কর্মচারীরা বাড়িটি রঙ করাবেন বলে মালামালসহ সেই বহিরাগত লোকদেরকে নিয়ে জোর করে ভেতরে ঢোকার চেষ্টা করে।

আরও পড়ুন  ভুয়া অভিযোগের দায়ে ফরহাদ মজহার ও তার বান্ধবীর নামে মামলা করছে রাষ্ট্র

হৈ চৈ এর শব্দ শুনে ইন্টারকমে বিষয়টি জানতে চান কবরী। তখন বিষয়টি তাকে অবহিত করা হয়। ঘটনা শুনে তিনি তার ছেলেকে সঙ্গে নিয়ে ভবনের গেট নেমে আসেন এবং ওই দুই ফ্ল্যাটের কর্মচারীদের কাছে বহিরাগত লোকদের নিয়ে জোর করে বাড়ির ভেতরে ঢোকার কারণ জানতে চান। এ সময় ওই কর্মচারীরা অভব্য আচরণ করে এবং বহিরাগত লোকরা উল্টো কবরী ও তার ছেলের উপরে চড়াও হয়। তারা কবরীকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে এবং প্রাণ নাশের হুমকি দেয়।

নায়িকা কবরীর দাবি, ৫ তলা ওই বাড়ির জমিটি তার। একটি আবাসন প্রতিষ্ঠানকে দিয়ে তিনি বাড়িটি নির্মাণ করিয়েছিলেন। যেটি নিয়ে আদালতে বর্তমানে মামলা চলছে। আদালতের নিষেধাজ্ঞা মতে, মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত ফ্ল্যাটের কোনো ধরনের সংস্কার বা পরিচর্যার কাজ করা যাবে না। কিন্তু ওই দুই ফ্ল্যাটের মালিক তা মানতে নারাজ। নারায়ণগঞ্জের এক প্রভাবশালী ব্যক্তির সহযোগিতায় দুই ফ্ল্যাটের মালিক বাড়িটি দখলের পাঁয়তারা করছে বলে অভিযোগ করেন কবরী।

আরও পড়ুন  নিঃসঙ্গ নারীদের প্রতি লোলুপ দৃষ্টি ছিল পীর পিয়ারের
Spread the love
  • 36
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    36
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।