বদলে গেছে বাংলাদেশ: এটাই কি হতে পারে সেই কাঙ্খিত টার্নিং পয়েন্ট?

0

স্পোর্টস ডেস্ক:

বেশ কিছুদিন ধরেই টাইগাররা বলছিলো একটি ভালো দিনই বদলে দেবে পুরো দলকে। আর সেখান থেকেই জ্বলে উঠবে টাইগাররা আগের মতো। হয়ে উঠবে অপ্রতিরোধ্য। তবে কি এসে গেছে সেই দিন? একটু পেছনে ফেরা যাক।

নিদাহাস ট্রফির প্রথম ম্যাচে ভারতের কাছে ৬ উইকেটে হারের পর দ্বিতীয় ম্যাচে শ্রীলংকার সাথে জয়ের মাধ্যমে দেশের মাটিতে হারার মধুর প্রতিশোধ নিলো বাংলাদেশ দল। হয়তো এমন কিছু ভেবে খেলেননি টাইগাররা, কিন্তু আসলেই কি ভেতরটা জ্বলছিলো না? জানা যাবে না হয়তো কখনো। তবে এই জয় ঘুচিয়ে দিলো দীর্ঘদিন ধরে জয়ের খরায় ভোগার আক্ষেপটা।

শুরুতেই টসে হেরে ব্যাটিংয়ে গিয়ে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ২১৪ রান তুলে ফেলে শ্রীলংকা। কুশল মেন্ডিসের ব্যাটে শুরু থেকেই ঝড় তুলেছিল শ্রীলঙ্কা, যার শেষ করেন কুশল পেরেরা। দুজনের দুর্দান্ত হাফ সেঞ্চুরিতে ফিল্ডিং নেওয়া বাংলাদেশকে ২১৫ রানের লক্ষ্য দেয় স্বাগতিকরা। ৬ উইকেটে লঙ্কানরা করে ২১৪ রান। কুশল মেন্ডিস বাংলাদেশের বিপক্ষে টানা হাফ সেঞ্চুরি করেন তৃতীয়বার। তার ৫৭ ও কুশল পেরেরার ৭৪ রানে বড় স্কোর দাঁড় করায় লঙ্কানরা।

আরও পড়ুন  গুরুত্বপূর্ণ সময়েই কেন মেসি ভেঙে পড়ে?

২১৫ রানের জয়ের লক্ষে ব্যাটিং করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভার আগে ১৯.৪ বলে ৫ উইকেট হাতে রেখে জয় তুলে নেয় টাইগাররা। আর এই ম্যাচে টাইগারদের জয়ের নায়ক মুশফিকুর রহিম। ব্যাট হাতে এই ব্যাটসম্যান ৫ চার ও ৪ ছক্কায় ৭২ রান করেন।

আউট হয়েছেঃ লিটন (৪৩), তামিম (৪৭), সৌম্য (২৪), মাহমুদউল্লাহ (২০), সাব্বির (০)। নটআউট মুশফিক (৭২) এবং মিরাজ (০) রান।

লঙ্কানদের দেওয়া পাহাড় সমান রানের বিপক্ষে লড়াইয়ের জন্য তামিমের সাথে ব্যাটিংয়ে আসেন লিটন দাস। ব্যাটিংয়ের শুরুটা ভালোই করেন এই দুই ওপেনার। লংকান বোলারদের কোন পাত্তা না দিয়ে একের পর এক চার ছক্কা মারতে থাকেন তারা। মাত্র ৪ ওভারেই দলীয় অর্ধশত রান করেন তামিম ও লিটন।

আরও পড়ুন  ভুল উপস্থাপনা এবং হেয় করার লক্ষ্যে প্রকাশিত ভিডিওটি: সাকিব

কিন্তু লিটন তার ব্যাটিং বেশিক্ষণ চালিয়ে যেতে পারলেন না। ১৯ বলে ৪৩ রানের একটি ঝড়ো ইনিংস খেলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফিরে যান সাজঘরে। লিটনের বিদায়ের পরেই ব্যক্তিগত ৪৭ রান করে থিসারা পেরেরার বলে ক্যাচ আউট হন তামিম। এরপর সৌম্যর সাথে নতুন করে ৫১ রানের জুটি গড়েন মুশফিকুর রহিম। সৌম্য ২৪ রান করে ক্যাচ আউট হন। খেলায় তখন টান টান উত্তেজনা। টাইগারদের ৩০ বলে ৬২ রানের প্রয়োজন। এই সময় ব্যাটিংয়ে আসেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। উপযুক্ত সঙ্গ দেন জ্বলতে থাকা মুশফিককে। রিয়াদ আউট হওয়ার পর আসেন মিরাজ। সাবধানে একপ্রান্তে আঁকড়ে থাকেন তিনি। অপরপ্রান্তে দিনের নায়ক মুশফিক তার জয়ের রথে বিজয়ী নিশান উড়িয়ে দেন।

টাইগার একাদশঃ তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মুশফিকুর রহিম, লিটন কুমার দাস, সাব্বির রহমান, আরিফুল হক, মেহেদী হাসান, নাজমুল ইসলাম অপু, রুবেল হোসেন ও মুস্তাফিজুর রহমান।

আরও পড়ুন  আফগানদের বিরুদ্ধে ম্যাচ নিয়ে টাইগারদের কপালে 'চিন্তার ভাঁজ'

শ্রীলংকা একাদশঃ দানুস্কা গুনাথিলাকা, কুশাল মেন্ডিস, কুশাল জানিথ পেরেরা, দিনেশ চান্দিমাল, উপুল থারাঙ্গা, থিসারা পেরেরা, দাসুন শানাকা, জীভান মেন্ডিস, আকিলা ধনঞ্জয়া, নুয়ান প্রদীপ ও চামিরা।

Spread the love
  • 7
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    7
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।