ভ্রমণ গাইড || স্বল্প খরচে কক্সবাজার ঘুরে আসার টিপস

0

দেশের পর্যটন স্থানগুলোর জনপ্রিয়তার সাথে পাল্লা দিয়ে বেড়ে চলেছে খরচও। এখন কোথাও যাওয়ার নাম নিলে খরচের চিন্তাটাই সবার আগে মাথায় আসে। কক্সবাজার বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় পর্যটন গন্তব্য। প্রতিবছর শুধু ডিসেম্বর মাসেই ৪০ লাখ পর্যটক আসে কক্সবাজারে। কীভাবে গেলে স্বল্প খরচে কক্সবাজার ভ্রমণ করতে পারবেন তার জন্য কিছু টিপস।

১. নন-এসি বাসে রাতে ভ্রমণ করুন। রাতে তাপমাত্রা কিছুটা কম থাকে। এছাড়া রাতে ভ্রমণের কারণে এক রাতের হোটেল ভাড়া বেঁচে যাবে আপনার। নন-এসির বাসের ক্ষেত্রে ইউনিক পরিবহন, শ্যামলী পরিবহন দেখতে পারেন। এদের সিট এবং ড্রাইভাররা ভালো।

২. সাধারণ ট্রাভেল ব্যাগের পরিবর্তে ব্যাকপ্যাক মানে পিঠে ঝুলানো যায় এমন ব্যাগ বহন করুন। সাধারণত ট্রলি ধরণের ব্যাগ ব্যবহারের কারণে আপনার চলাচলের সীমাবদ্ধতা তৈরি হয়। ফলে অপ্রয়োজনীয় খরচ বেড়ে যায়।

৩. বিচ থেকে কিছুটা দূরে হোটেল ঠিক করবেন। গলির ভিতরে হলেও কোনো সমস্যা নেই। প্রথমে একজন গিয়ে দরাদরি করে রুম ঠিক করুন, পরে বাকীদের ডেকে আনুন। ভাড়া অর্ধেকেই পেয়ে যাবেন। একসাথে অনেক মানুষ এবং লটবহর নিয়ে সচরাচর কেউ বাস জার্নি করে এসে দরদামের ঝামেলায় যেতে চায় না এবং দরদাম পছন্দ না হলে আবার সবাইকে নিয়ে অন্যত্র গিয়ে হোটেল চেক করতে চাইবে না- এই ধারণা থেকে ভাড়ার ক্ষেত্রে অটল থাকে হোটেল কর্তৃপক্ষ। রিক্সাওয়ালা, অটো/সিএনজি চালকদের পরামর্শে হোটেল নিবেন না, কারণ তারা হোটেল থেকে কমিশন পেয়ে আপনাদেরকে বিভ্রান্ত করবে।

৪. বিচ থেকে হেঁটে হেঁটেই আসা যাওয়া করুন। রিকশা বা অটো নিতে হলে দরদাম করে উঠুন।

৫. খাবারের ক্ষেত্রে কয়েকজন থাকলে মূল আইটেমগুলো ভাগ করে খান। উদাহরণ- ৪ জনের জন্য ১. ভাত ৪টা (১২০ টাকা) ২. হাফ মিক্সড ভাজি-ভর্তা (৮০ টাকা) ৩. লইট্যা মাছ ১টা (১২০ টাকা) ৪. ডাল ১টা (৩০ টাকা) ৫. গরু/মুরগী/মাছ ১টা (১২০ টাকা) সব মিলে গড়ে প্রায় ১২০ টাকা করে প্রতিজন।

৬. ভুলেও রূপচান্দা বা চিংড়ি মাছ অর্ডার করবেন না।

৭. হিমছড়ি যেতে হলে কলাতলি মোড় থেকে লোকাল অটোতে উঠে যান। ২০ টাকা করে ভাড়া। আর ৫/৬ জন হলে দরাদরি করে একটা অটো ঠিক করে নেন।

৮. কলাতলি মোড় থেকে লোকাল অটো বা জীপে করে ইনানিও যেতে পারেন। একই পথে খরচ পড়বে ৫০-৬০ টাকা।

৯. রাতে গাড়ি থাকলে দুপুরের আগে চেক আউট টাইম অনুসারে হোটেল ছেড়ে দিন। হোটেল কর্তৃপক্ষকে বলে আপনার ব্যাগ হোটেলে চেক আউট লাগেজ হিসেবে রাখার ব্যবস্থা করে আপনি ঘুরে বেড়ান।

১০. যদি সম্ভব হয় কর্মদিবসগুলোতে যাবেন (রবি থেকে বৃহস্পতি), সে সময় ভিড় কম থাকবে, হোটেল ভাড়াও কম থাকে। দু্ই ঈদের আগে পরে, ৩ দিনের বন্ধ, ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহ এগুলো এড়িয়ে যাবেন। আপনার বাজেট কম এ জন্য কখনও লজ্জা পাবেন না বা বিব্রত হবেন না। স্বল্প বাজেট নিয়ে আপনি দেশ দেখতে বের হচ্ছেন/সাহস করছেন সেটা গর্বের বিষয় লজ্জার নয়। এক সময় হয়ত আপনার টাকা হবে কিন্তু ঘোরার সময় থাকবে না।

মুহাম্মদ হোসাইন সবুজ

Spread the love
  • 3
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    3
    Shares

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।