লেগিংস বা ইয়োগা প্যান্ট সংক্রমণ ছড়ায়!

0

আপনি কি অতিমাত্রায় ফিটনেসপ্রেমি? প্রতিদিন অনেকটা সময় জিমে ওয়ার্কআউট করে বা যোগাভ্যাস করে কাটান? অর্থাৎ, আপনাকে অনেকটা সময় অ্যাথলেটিক প্যান্ট, লেগিং, টাইটস পরে কাটাতে হয়।

আবার এই ধরনের পোশাক শরীরের পারফেক্ট কার্ভ ফুটিয়ে তোলে বলে অনেকে ফ্যাশনওয়্যার হিসেবেও বেছে নেন টাইট ফিটিং লাইক্রা-স্প্যানডেক্স প্যান্ট। এই ফ্যাশন ট্রেন্ডের নাম এখন অ্যাথলেশিওর। তবে চিকিৎসক, ত্বক বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, ব্যাপারটা মোটেও বিশেষ ফ্যাশনেবল নয়।

মাউন্ট সিনাই স্কুল অব মেডিসিনের ত্বক বিশেষজ্ঞ মাইকেল এডলম্যানের মতে, দীর্ঘ সময় ধরে এই সব সিন্থেটিক লাইট লেগিংস, ওয়ার্কআউট প্যান্ট পরে থাকার কারণে ত্বকে অক্সিজেন চলাচল করতে পারে না। ফলে ঘাম জমে ইস্ট ইনফেকশন, জিটস, র‌্যাশের মতো কষ্টকর সমস্যাগুলো বাড়তে থাকে।

আরও পড়ুন  ঘাম হলেই যে চর্বি ঝরছে- বিষয়্টা এমন নয়!

টিনিয়া ক্রুরিস

এই ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ পুরুষদের বেশি হয়। সাধারণ ভাবে একে জক ইচ (আন্ডারওয়্যার থেকে চুলকুনি) বলা হয়। এর থেকে ফাংগাল ইনফেকশন হয়ে থাইয়ের ভিতরের অংশ, নিতম্ব, কুঁচকি ও যৌনাঙ্গে চুলকুনি হয়।

মহিলাদের ক্ষেত্রে ইস্ট ইনফেকশন, ভ্যাজাইনাইটিসের প্রকোপ বাড়ছে। টাইট, ভেজা সিন্থেটিক পোশাক অনেকক্ষণ পরে থাকার জন্য কুঁচকি, বগল, শরীরের বিভিন্ন ভাঁজে জীবাণু সংক্রমণ হয়। এমনকী, ঘাম, শরীর থেকে বেরনো তেল, টক্সিন অ্যাকনের সমস্যাও ডেকে আনে।

নোংরা, ঘামে ভেজা জিম ম্যাট

ওয়ার্কআউটের পর শরীর থেকে প্রচুর টক্সিন বেরোয়। তাই জিমের ম্যাটে কিন্তু নিজের শরীরের টক্সিনের উপরই আপনি বসে রয়েছেন। স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, নিয়মিত ওয়ার্ক-আউট লেগিংস পরে জিম করার কারণে অনেক মহিলাই এখন ভ্যাজাইনাইটিসের সমস্যায় ভুগছেন। তাই যোগ করার ম্যাটও নিয়মিত পরিষ্কার করুন।

আরও পড়ুন  ভাতের মাড়: রূপচর্চায় প্রাচীন জাপানি পদ্ধতি

কী করবেন

ওয়ার্কআউটের রুটিনের পর একটু যত্ন নিলে এই সমস্যা কাটিয়ে উঠতে পারবেন-

ওয়ার্কআউটের পর যোনি, কুঁচকির চারপাশ থেকে ঘাম ধুয়ে ফেলুন। ভেজা ভাব থেকে জন্মানো ব্যাকেটেরিয়া ইনফেকশনের সমস্যা ডেকে আনে। পোস্ট-ওয়ার্কআউট শাওয়ারের পর হালকা সুতির কোনও পোশাক পরে নিন যাতে হাওয়া চলাচল করতে পারে।

[ইন্টারনেট]

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।