স্ত্রীর সাথে পরকীয়া: প্রতিশোধ নিতে প্রেমিকের বৃদ্ধা মা’কে ধর্ষণ

0

পরকীয়া একটি সামাজিক অপরাধ। প্রচলিত আইনে এর সাাজাও রয়েছে। কিন্তু দেশের আইন ও বিচার ব্যবস্থার দ্বারস্থা না হয়ে প্রতিশোধ নিতে গিয়ে ধর্ষণের মতো আরেকটি ঘৃণ্য অপরাধ কখনোই কাম্য নয়। তারওপর যদি হয় কোন বৃদ্ধাকে ধর্ষণ- সেটা ঘৃণার পাশাপাশি নির্মমতারও একটি উদাহরণ হয়ে দাঁড়ায়। এমনই একটি ঘটনা ঘটেছে যশোরে।

জেলার অভয়নগর উপজেলার জনৈক জাহিদ শেখ তার স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়ার ঘটনার জেরে প্রেমিকের বৃদ্ধা মাকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ শুক্রবার উপজেলার নওয়াপাড়া গ্রামের জাহিদ শেখ ও মো. সোহাগকে আটক করে কারাগারে পাঠিয়েছে।

অভয়নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ গনি মিয়া জানান, ভুক্তভোগী বৃদ্ধা একসময় জাহিদ শেখের বাড়িতে কাজ করতেন। এর সুবাদে তার ছেলে জাহিদের বাড়িতে যাতায়াত করতেন। এতে কর্মসূত্রে বাড়ির বাইরে থাকা জাহিদ শেখের স্ত্রীর সঙ্গে বৃদ্ধার ছেলের প্রথমে হৃদ্যতার সম্পর্ক তৈরী হয়। এক পর্যায়ে তা ধীরে ধীরে পরকীয়ার সম্পর্কে গড়ায়।

আরও পড়ুন  দানশীলতার মুখোশের আড়ালে জঙ্গী অর্থায়ন!

ঘটনাক্রমে বিষয়টি টের পেয়ে প্রতিশোধ পরায়ণ হয়ে ওঠে জাহিদ শেখ। শোধ নিতে গত বুধবার রাতে অস্ত্রের মুখে ওই বৃদ্ধাকে তুলে নিয়ে যায় জাহিদ। তারপর বাড়ির পাশ্ববর্তী বাঁশবাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে। বৃহস্পতিবার রাতে বৃদ্ধার পরিবারের সদস্যরা বিষয়টি পুলিশকে জানায়।

অভিযোগ পেয়ে ওই গ্রামে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত জাহিদ শেখ ও সোহাগকে আটক করা হয়। পরে আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

ভুক্তভোগীর জবানবন্দি ও প্রাথমিক আলামতের ভিত্তিতে ঘটনার সত্যতা মিলেছে। ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বৃদ্ধাকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় ৪ জনের নামে থানায় মামলা হয়েছে। বাকিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে বলে জানিয়েছেন ওসি।

এ বিষয়ে যশোর জেনারেল হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত তত্ত্বাবধায়ক ডাক্তার আব্দুর রহিম মোড়ল বলেন, এরকম একটা রোগীর ধর্ষণ পরীক্ষার আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে৷ রিপোর্ট পেলে বিস্তারিত বলা জানা যাবে।

আরও পড়ুন  ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল- এর কয়েকটি মন খারাপ করা ঘটনা
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।