বুড়ো হাড়ে ভেলকি দেখিয়ে শ্রীলংকাকে ঠেসে ধরলেন রাজ্জাক

0

বয়স হয়ে গেছে, ফর্ম নেই, পারফরমেন্সের গ্রাফ নিচের দিকে- সমালোচকদের মুখে ছাই মেখে ৪ বছর পর টেস্ট দলে সুযোগ পেয়েই ভেলকি দেখিয়ে দিলেন স্পিনার আব্দুর রাজ্জাক। বাংলাদেশের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটের শীর্ষ উইকেট শিকারি প্রথম সেশন শেষ হওয়ার আগে জোড়া আঘাত করেছেন শ্রীলঙ্কার ব্যাটিং লাইন আপে। নিজের ষষ্ঠ ওভারের প্রথম দুই বলে উইকেট নিয়ে হ্যাটট্রিকের সুযোগ পান এ স্পিনার। যদিও তিনি পাননি টানা বলে তৃতীয় উইকেটের দেখা। অবশ্য প্রথম সেশনের ৩২.১ ওভারে ৬ উইকেটে ১১০ রান করা শ্রীলঙ্কা ঠিকই চাপে পড়েছে।

ঢাকা টেস্টে প্রথম উইকেটও নেন রাজ্জাক। ১৪ রানে প্রথম উইকেট নিয়ে দুর্দান্ত প্রত্যাবর্তনের আভাস দেন তিনি। নিজের তৃতীয় ওভারের প্রথম বলে দিমুথ করুনারত্নেকে স্টাম্পিং করে ফেরান বাংলাদেশের এই অভিজ্ঞ স্পিনার। তার বল ক্রিজের বাইরে আসা শ্রীলঙ্কার ওপেনারের দুই পায়ের মধ্যে দিয়ে চলে যায় লিটন দাসের হাতে। বাংলাদেশি উইকেটরক্ষক সহজেই স্টাম্প উপড়ে ফেলেন। কিন্তু ক্রিজে নেমে আবারও স্বাগতিকদের অস্বস্তিতে ফেলেন কুশল মেন্ডিস ও ধনঞ্জয়া ডি সিলভা। অবশ্য চট্টগ্রাম টেস্টের এই বিপজ্জনক জুটি বেশি দূর যেতে পারলো না মিরপুরে। ধনঞ্জয়াকে ১৯ রানে স্লিপে সাব্বির রহমানের ক্যাচ বানান তাইজুল ইসলাম। তাদের জুটিটা ছিল ৪৭ রানের।

আরও পড়ুন  পরকীয়ার সৌদি বিচার: নারীকে পাথর ছুঁড়ে হত্যা, সঙ্গীকে ১০০ দোররা!

এরপর দানুশকা গুনাথিলাকাকে নিয়ে কুশল আরেকটি প্রতিরোধ গড়েছিলেন। রাজ্জাক সেটা ভেঙে দেন তার ষষ্ঠ ওভারে। ২৬ বলে ১৩ রান করে মুশফিকের কাছে ক্যাচ দেন গুনাথিলাকা। ভাঙে ৩৫ রানের জুটি। মাঠে নেমে প্রথম বলেই দিনেশ চান্ডিমাল বোল্ড। রাজ্জাকের বল বুঝে ওঠার আগেই তার স্টাম্প ভেঙে দেয়। বাংলাদেশি স্পিনার হ্যাটট্রিকের সুযোগটা কাজে লাগাতে পারেননি রোশেন সিলভা বল ঠেকিয়ে দিলে। কুশল ৬৪ রানে খেলছেন, রোশেন করেছেন ৫ রান।

সর্বশেষ এই প্রতিবেদন তৈরী করতে করতেই ভয়ংকর হয়ে ওঠা কুশল মেন্ডিসকেও ফেরান সিনিয়র প্রো আব্দুর রাজ্জাক। বোল্ড হওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি করেন ৬৮ রান। আনন্দ উদযাপনকে আরেকটু দীর্ঘায়িত করেন তাইজুল। অভিজ্ঞ রাজ্জাককে পাশে পেয়ে তিনিও মেলে ধরেছেন তার বৈচিত্রের ঝাঁপি। ধুঁকতে ধুঁকতে ৩টে বল খেলেই আত্মসমর্পণ করলেন ডিকওয়েলা। তাইজুলের বলে বোল্ড হয়ে ফেরার আগে তার সংগ্রহ মাত্র ১ রান।

আরও পড়ুন  ‘বাংলাদেশী কোনও ব্যাটসম্যান আগে এভাবে পেটায়নি’

ঢাকায় সিরিজ নির্ধারণী টেস্টে টস জিতেছে শ্রীলঙ্কা। তারা ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয়। এই ম্যাচ দিয়ে চার বছর পর টেস্টে ফিরলেন বাংলাদেশের অভিজ্ঞ স্পিনার রাজ্জাক। ২০১৪ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চট্টগ্রামে শেষ টেস্ট খেলেছিলেন তিনি। আর ওই বছরের আগস্টে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের পর এই প্রথম জাতীয় দলের জার্সি পরলেন রাজ্জাক। এছাড়া চট্টগ্রাম টেস্টে দলের বাইরে থাকা সাব্বির রহমান ফিরেছেন দ্বিতীয় ম্যাচের একাদশে। মোসাদ্দেক হোসেন ও সানজামুল ইসলাম বাদ পড়েছেন।

শ্রীলঙ্কা দলে টেস্ট অভিষেক হলো আকিলা ধনঞ্জয়ার। লাকশান সান্দাকান বাদ পড়েছেন। এছাড়া পেসার লাহিরু কুমারাকে বাইরে রেখে ব্যাটসম্যান গুনাথিলাকাকে নিয়েছে সফরকারীরা। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথমটি হয়েছিল ড্র।

চট্টগ্রাম টেস্টের মতো এক পেসার, সাত ব্যাটসম্যান ও তিন বিশেষজ্ঞ স্পিনার নিয়ে ঢাকা টেস্টের একাদশ সাজিয়েছে বাংলাদেশের টিম ম্যানেজমেন্ট।

আরও পড়ুন  ইসলাম গ্রহণ করে অজি ক্রিকেটার উসমান খাজাকে বিয়ে করলেন র‌্যাচেল

বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস, মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ (অধিনায়ক), লিটন দাস, সাব্বির রহমান, মেহেদী হাসান মিরাজ, আব্দুর রাজ্জাক, তাইজুল ইসলাম ও মোস্তাফিজুর রহমান।

শ্রীলঙ্কা একাদশ: দিমুথ করুনারত্নে, কুশল মেন্ডিস, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, রোশেন সিলভা, দিনেশ চান্ডিমাল (অধিনায়ক), নিরোশান ডিকবেলা, দানুশকা গুনাথিলাকা, দিলরুয়ান পেরেরা, আকিলা ধনঞ্জয়া, রঙ্গনা হেরাথ ও সুরাঙ্গা লাকমল।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।