গান গাওয়ার অপরাধে টাঙ্গাইলে বাউল শিল্পীর বাড়ি ভাঙচুর, লুটপাট!

0

দীর্ঘদিন ধরেই দেশে বাউল শিল্পীদের ওপর নির্যাতন চলে আসছে। কখনও তাদের আখড়ায় ভাঙচুর, কখনও তাদেরকে ধরে বেঁধে পেটানো, কখনও তাদের মাথার চুল কামিয়ে দেয়া আবার কখনও তাদেরকে জোরপূর্বক কলেমা পড়িয়ে ‘শুদ্ধ’ করার মতো ঘৃণ্য ও ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটে দেশের আনাচে কানাচে। মূলতঃ বাউল শিল্পীরা আধ্যাত্মিক চর্চা করেন, তারা প্রচলিত ধর্মকর্মে বিশ্বাসী নন, সাধারণ ধর্ম বিশ্বাসের চাইতে তাদের দর্শণ ভিন্ন- এটাই সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলমান সমাজ মেনে নিতে পারেনা, তাই শুরু হয় সংঘাত।

এরই ধারাবাহিকতায় টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার কীর্ত্তণখোলা পল্টনপাড় এলাকায় বসবাসরত বাউল শিল্পী মাজেদা সরকারের বাড়িঘর ভাঙচুর, নগদ অর্থসহ স্বর্ণালঙ্কার লুটপাট করা হয় বলে জানা গেছে। বহুদিন ধরেই আশে পাশের স্থানীয় মুসলমান প্রতিবেশিরা (জ্ঞাতি সম্পর্কের আত্মীয়সহ) মাজেদা সরকারের গান বাজনা চর্চা আর আধ্যাত্মবাদের বিরোধিতা করে আসছিলো। সেই সাথে তার জমিজমার ওপরেও নজর পড়েছিলো প্রতিবেশিদের। এসবের জের ধরে মাজেদা সরকারের আখড়ায় হামলা করা হয়। বাধা দিতে গেলে শিল্পী মাজেদা সরকারসহ অন্য চারজন আহত হয়েছেন।

এই ঘটনার প্রেক্ষিতে রাতে বাউল শিল্পী মাজেদা সরকার বাদী হয়ে তার দুই ভাসুরসহ ১১জনকে আসামী করে সখীপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

অভিযোগসূত্রে জানা যায়, প্রতিবেশী আবদুল হাকিম ও জামাল উদ্দিন এবং তাদের সন্তানরা লাঠিসোঁটা নিয়ে আলাউদ্দিনের স্ত্রী বাউল শিল্পী মাজেদা সরকারের বাড়িঘর ভাঙচুর ও ঘরে থাকা নগদ ৭০ হাজার টাকা এবং সাড়ে চার ভরি স্বর্ণালঙ্কার লুট করে নিয়ে যায়। হামলায় বাউল শিল্পী মাজেদা সরকার (৩৫) স্বামী আলা উদ্দিন (৪০) ও তাদের দুই সন্তান স্বরুপ (৮) বিনোদিয়া (১২) আহত হয়।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. ওয়াসিম মিয়া হামলার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বাউল গানের শিল্পী মাজেদা সরকারের সাথে তার প্রতিবেশিদের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। তারই ধারাবাহিকতায় এ ঘটনা ঘটেছে। সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাকছুদুল আলম বলেন, এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।