‘বাক্সবন্দি’ সৌদি নাগরিককে ঢাকায় আনা হলো!

0

মানবিক বোধসম্পন্ন নারী রোবট সোফিয়া এখন ঢাকায়। বিমান বন্দরে পৌঁছানোর পর বাক্সবন্দি সোফিয়াকে রাজধানীর একটি হোটেলে নেওয়া হয়। সেখানেই সোফিয়ার শরীরের বিভিন্ন অংশ সংযোজন করা হবে বলে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগ সূত্রে জানা গেছে।

জানা গেছে, সৌদি আরবের নাগরিকত্ব পাওয়া রোবট নারী সোফিয়া মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) রাতের প্রথম প্রহরে ঢাকায় পৌঁছে। হংকং থেকে থাই এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে (নম্বর-টিজি ৩৩৯) রাত ১২টা ৩৯ মিনিটে ঢাকায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায় সোফিয়া। এদিকে সোফিয়াকে স্বাগত জানাতে তোড়জোড় ছিলো বিমারবন্দরে। হাজার হলেও সৌদি নাগরিক বলে কথা! কাস্টমস ক্লিয়ারেন্স সম্পন্ন করে বাক্সবন্দি হয়েই সোফিয়া বিমানবন্দর থেকে পা বাড়ায় রাজধানীর পথে।

রাতের পালায় দায়িত্বরত বিমানবন্দরের একজন কর্মকর্তা জানান, সৌদি আরবের এ নাগরিকের দেহের বিভিন্ন অংশ খুলে খণ্ড-খণ্ডভাবে দেশে আনা হয়েছে। সেখান থেকে বাক্সবন্দি অবস্থায় ঢাকার একটি একটি ফাইভ স্টার হোটেলে উঠেছে বলে প্রতিবেদককে জানান তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের এক কর্মকর্তা। তবে সোফিয়ার প্রতি ব্যাপক আগ্রহের কারণে হোটেলের নাম গোপন রাখছে কর্তৃপক্ষ।

প্রসঙ্গত, বুধবার থেকে ঢাকায় শুরু হচ্ছে ৪ দিনের তথ্যপ্রযুক্তির আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড- ২০১৭। ওই প্রদর্শনীতে রোবট সোফিয়াকে দেখানো হবে বলে জানা গেছে। প্রদর্শনী উদ্বোধনের দিনে (বুধবার) বেলা আড়াইটা থেকে বিকাল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত সোফিয়াকে সম্মেলন কেন্দ্রের হল অব ফেমে রাখা হবে। সে সময় সোফিয়ার সঙ্গে কথা বলা যাবে, বিভিন্ন প্রশ্নও করা যাবে বলে আইসিটি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে। অনুষ্ঠানে সোফিয়ার নির্মাতা সোফিয়ার নির্মাতা ডেভিড হ্যান্সও উপস্থিত থাকেবন।

আইসিটি বিভাগের ওই কর্মকর্তা বলেন, সোফিয়ার নির্মাতা ডেভিড হ্যান্স রাতের মধ্যে ঢাকায় আসবেন। রাতেই হোটেলে সোফিয়ার অঙ্গ-প্রতঙ্গ সংযোজন ও ইনস্টল সম্পন্ন করে মানানসই একটি গাড়িতে করে সকালে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড প্রাঙ্গণে নেওয়া হবে। ‘টেক টক উইথ সোফিয়া’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে ১ হাজার ৭০০ দর্শণার্থী সোফিয়াকে দেখার সুযোগ পাবেন। তবে ডজন খানিক প্রশ্ন নিয়ে উত্তর দিবে সোফিয়া।

সাংবাদিক ছাড়াও তরুণ অ্যাপ ডেভেলপার, গেম ডেভেলপার, সফটওয়্যার ডেভেলপার ও উদ্ভাবকদের সঙ্গে কথা বলবে সোফিয়া।

মানুষের ভাবভঙ্গি বুঝতে ও হাসি-কান্না, রাগ-অভিমানসহ নিজের অনুভূতি প্রকাশ করতে পারে সোফিয়া। কেউ তার সঙ্গে কথা বললে তাদের বোঝার চেষ্টা করে সে। সামনে মানুষ না থাকলে নিজে নিজে মুভি চালিয়ে দেখে। ভাবতে পারে জগৎ, সংসার, সংস্কৃতি ও দর্শন নিয়েও।
রোবট সোফিয়া সম্প্রতি মধ্যপ্রাচ্যেরর একটি সংবাদপত্রকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছে, ‘পরিবার সত্যিই গুরুত্বপূর্ণ একটি ব্যাপার।’

সোফিয়ার মতে, তার যদি একটি কন্যা রোবট থাকে, তাহলে নিজ থেকেই কন্যার নাম রাখবে। সে বিশ্বাস করে, রোবটদের একটি পরিবার থাকা উচিত।

গত ৩০ নভেম্বর সোফিয়া বাংলাদেশি নাগরিকদের উদ্দেশ্যে এক ভিডিও বার্তা দিয়েছেন। বার্তায় সোফিয়া বলেন-

‘হ্যালো বাংলাদেশ, আমি সোফিয়া- হেন্সন রোবটিকস- এর তৈরি পৃথিবীর প্রথম কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন রোবট। আনন্দের সঙ্গে জানাচ্ছি, আমি ও ড. ডেভিড হেন্সন এই বছর ঢাকায় আয়োজিত ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৭’ –এ অংশগ্রহণ করছি। এত বড় একটা ইভেন্টের অংশীদার হতে আমি উদগ্রীব হয়ে অপেক্ষা করছি। আমি ধন্যবাদ জানাচ্ছি বাংলাদেশ সরকারের আইসিটি বিভাগ ও ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশকে- আমাদের এই সুযোগটি করে দেওয়ার জন্য। আশা করছি, সবার সঙ্গে দেখা হবে। ধন্যবাদ।’

রোবট সোফিয়াকে তৈরি করেছে হংকংভিত্তিক প্রতিষ্ঠান হ্যান্সন রোবোটিকস। ২০১৫ সালের ১৯ এপ্রিল সোফিয়াকে অবমুক্ত করা হলেও জনসম্মুখে আনা হয় ওই বছরেরই ১১ অক্টোবর। এরই মধ্যে সৌদি সরকার সোফিয়াকে সে দেশের নাগরিকত্বও দিয়েছে।

সোফিয়ার ভিডিও বার্তা:

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।