মাদ্রাসা শিক্ষকের হাত ধরে অশ্লীল নায়িকা ময়ূরী ৩য় বার বিয়ের পিঁড়িতে!

0

ঢাকাই সিনেমার একসময়ের আলোচিত সমালোচিত চিত্রনায়িকা ময়ূরী গত আগস্ট মাসের মাঝামাঝি সময়ে ফের বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন। আর এ নিয়ে ৩য় বারের মতো বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন তিনি। পেশায় একজন মাদ্রাসার শিক্ষক নতুন স্বামী মোহাম্মদ জুয়েল আহমেদকে নিয়ে সুখেই আছেন তিনি।

এ নায়িকার একজন ঘনিষ্ট আত্মীয় সূত্রে জানা গেছে, ময়ূরীর ২য় স্বামীর সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয় মাস তিনেক আগে। এরপর জুয়েলের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। পরিচয়ের দেড় মাসের মধ্যে জুয়েলকে বিয়ে করেন ময়ূরী। নতুন স্বামীর সঙ্গে সুখের দাম্পত্য পেতেছেন টঙ্গীতে। সঙ্গে রয়েছে ময়ূরীর আগের ঘরের একমাত্র কন্যা অ্যাঞ্জেল।

ময়ূরীর ১ম স্বামী রেজাউল করিম খান মিলন ছিলেন টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান। তিনি মারা যান ২০১৫ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর। এরপর ময়ূরী ২য় বারের মতো বিয়ে করেন শ্রাবণ শাহ নামের এক চলচ্চিত্র অভিনেতাকে। কিন্তু সেই সংসারও টেকেনি। এবার শুরু করেছেন নতুন সংসার।

বাংলা চলচ্চিত্রের অশ্লীল যুগের সুপার হিট এই নায়িকা খোলামেলা দৃশ্যের জন্য কুখ্যাত ছিলেন। তার অভিনীত সিনেমা মানেই নগ্নতায় পরিপূর্ণ গল্পহীন সিনেমা, যা ব্যবসা সফল হতো শুধুমাত্র উদ্দাম নাচ-গানা আর শরীর প্রদর্শণের মাধ্যমে। পরবর্তীতে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময়ে চলচ্চিত্রাঙ্গন থেকে অশ্লীলতা দূরীকরণে টাস্কফোর্স গঠন হয় এবং একে একে অশ্লীল সিনেমার নির্মাতাদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু হয়। তখনই আড়ালে চলে যান এই নায়িকা। দীর্ঘদিন তিনি নীরব ছিলেন। হঠাৎ করে এই বিয়ের মাধ্যমে আবারও তিনি লাইম লাইটে।

১৯৯৮ সালে ‘মৃত্যুর মুখে’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে চলচ্চিত্র জগতে আগমন করেন ময়ূরী। তার অভিনীত তিন শতাধিক ছবি মুক্তি পেয়েছে। তার সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র ‘বাংলা ভাই’।

উল্লেখ্য, এর আগে আরেক আইটেম গার্ল হ্যাপীও এক মাদ্রাসা শিক্ষকের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের খেলোয়াড় পেসার রুবেল এর সাথে প্রেম এবং তা নিয়ে পরবর্তী সময়ে বেশ কিছু স্ক্যান্ডাল ছড়ায়। যার প্রেক্ষিতে গণরোষের শিকার হয়ে আত্মগোপণে চলে যান তিনি। পরে চলচ্চিত্র জগৎকে বিদায় জানিয়ে মাদ্রাসায় ভর্তি হন। সেই সূত্রে অন্য এক মাদ্রাসার শিক্ষকের সাথে পরিচয় এবং সবশেষে গোপণে বিয়ে করেন তিনি।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।